হিন্দুদের মন্দির-বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে নিকলীতে মানববন্ধন

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ 

দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দির, হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা ও শিশু পূজাকে পাশবিক নির্যাতনের প্রতিবাদে নিকলীতে মানববন্ধন হয়েছে। আজ বৃহঃপতিবার বেলা ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত নিকলী শহীদ স্বরণিকা বালিকা উচ্চবিদ্যাল চত্বরে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে হিন্দু সম্প্রদায়ের সহস্রাধিক নাগরিক সমাজ অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে পূজা উদযাপন পরিষদ, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ মন্দির একাত্মতা প্রকাশ করে। মানববন্ধন সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন উপজেলা সচেতন নাগরিক সমাজের সভাপতি: শিক্ষক আহসান উল্লাহ্ , মুক্তিযোদ্ধা আরব আলী, সচেতন নাগরিক সমাজের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সঞ্জয় সাহা, মোঃ কাউসার, সানি সূত্রধর, আঙ্গগুর মিয়া প্রমুখ। বক্তারা বলেন, একটি চক্র বাংলাদেশকে অকার্যকর রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত করতে একের পর এক সংখ্যালঘু নির্যাতন করছে। তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর, হবিগঞ্জের মাধবপুর, গোপালগঞ্জ, মাগুরাসহ দেশব্যাপী হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর, মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর, লুটপাট ও হামলা চালাচ্ছে। এমনকি শিশু মেয়ে পূজাকে পাশবিক নির্যাতন ও ধর্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু সরকার এ সব সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ। তাই বর্তমানে হিন্দুসহ সব সংখ্যালগু সম্প্রদায়ের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। এই অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না। যদি সরকার সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয় তাহলে বৃহত্তর আন্দোলন করা হবে। নাসিরনগরে প্রায় ২০টি মন্দির ও ৭০-১০০টি হিন্দু বাড়িঘরে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এরই পাঁচদিন পর রাতে আবারও হিন্দু সম্প্রদায়ের কয়েকটি বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা।

 

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ডটকম/১০-১১-২০১৬ইং/ অর্থ

Comments

comments

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ