“কাতারে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ৯ বাংলাদেশির মৃত্যু”

মোঃ দ্বীন ইসলাম খাঁন, কাতার প্রতিনিধি :
কাতারে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মৃত্যুবরণ করেছেন নয়জন বাংলাদেশি। এঁদের মধ্যে চারজন স্বাভাবিক ভাবে মৃত্যুবরণ করেছেন এবং বাকি পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে বিভিন্ন দুর্ঘটনায়।
জানুয়ারি মাসে নিহতরা হলেন সিলেটের গোপালগঞ্জের সয়াব আলীর পুত্র আবুল আহমদ, কুমিল্লা জেলার বরুড়া উপজেলার দক্ষিণবাঘা গ্রামের সিরাজ মিয়ার পুত্র হানিফ, কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার মরহুম আলিম উদ্দীনের পুত্র আমির হামজা (স্বাভাবিক মৃত্যু), টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলার কাশতোলা মির্জাপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র মোশাররফ হোসেন, কুমিল্লা জেলা সদরের ক্যাপ্টেন বাজারের মৃত আব্দুল বারির পুত্র মো. শফিক বারী (স্বাভাবিক মৃত্যু), জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ উপজেলার সোমনাথপাড়ার জিনাং মান্ডার পুত্র নিরন্তর সাংমা (স্বাভাবিক মৃত্যু), চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া ইউনিয়নের চরম্বা গ্রামের আবুল কাশেমের পুত্র মোরশেদুল ইসলাম, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার নলদরি গ্রামের মোকলিস মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ সুমান মিয়া, মুন্সিগঞ্জ জেলা সদরের তর্কী গ্রামের বজলু কাজীর পুত্র ওয়াসিম কাজী (স্বাভাবিক মৃত্যু)।
কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, দুর্ঘটনাজনিত কারণে যারা মারা গেছেন, নিয়ম অনুযায়ী তাদের পক্ষে ক্ষতিপূরণ আদায়ের জন্য ইতিমধ্যে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ক্ষতিপূরণের অর্থ পাওয়া গেলে তা মৃত ব্যক্তির নিকটাত্মীয়ের কাছে পাঠানো হবে।
কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম শাখা প্রবাসে মৃত ব্যক্তিদের বিষয়গুলো দেখভাল করে থাকে। দূতাবাস সপ্তাহের সাতদিন ২৪ ঘন্টা জুড়ে মৃত্যুজনিত সেবা দিয়ে থাকে।

 

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১২-এপ্রিল-২০১৭ইং/নোমান

Leave A Reply

Your email address will not be published.