এবার ঢাকা-খুলনা-কলকাতা রুটে চালু হচ্ছে সরাসরি বাস সার্ভিস

Muktijoddhar Kantho , Muktijoddhar Kantho
মে ১৩, ২০১৭ ৯:১৭ অপরাহ্ণ

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ রিপোর্ট :

একই বাসে করে পৌঁছানো যাবে কলকাতা। আগামী সোমবার থেকে ঢাকা খুলনা কলকাতা রুটে এ বাস সার্ভিস চালু হবে। ঢাকা থেকে মাওয়া কাঠালবাড়ি ঘাট হয়ে খুলনা হয়ে কলকাতা রুটে গ্রীন লাইন পরিবহন ও বিআরটিসিরি যৌথ উদ্দ্যোগে সপ্তাহে একদিন পরপর এ বাস চলাচল করবো। আগামী ২২মে সোমবার গ্রীন লাইন পরিবহনের অত্যাধুনিক এ বাসটি উদ্বোধন করবেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। এরআগে ১৯৯৯ সালে ঢাকা কলকাতা রুটে শ্যামলী পরিবহন ও বিআরটিসিরি যৌথ উদ্যোগে যাত্রীবাহী বাস চলাচল শুরু হয়। এটি চলাচল করে ঢাকা যশোর কলকাতা রুটে। কিন্তু বেলাপোল বন্দর হয়ে যাত্রীদের ভারতীয় সীমান্ত হরিদাসপুরে পৌঁছে অন্য বাসে চড়তে হতো।
এ ব্যাপারে গ্রীন লাইন পরিবহনের জেনারেল ম্যানেজার আব্দুস সাত্তার বলেন, সরাসরি বাস সার্ভিস চালু সরকারের অঙ্গীকার। এরফলে কোলকাতার সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ আরো সহজতর হবে।
তিনি বলেন, আগে ঢাকা থেকে যশোর হয়ে বেনাপোল বন্দরে পৌঁছায়। এটি কাটা সার্ভিস। আব্দুস সাত্তার বলেন, ঢাকা থেকে মাওয়া কাঠালবাড়ি খুলনা হয়ে দূরত্ব একটু বেশি হলেও সময় অনেক কম লাগবে। বাসটি ঢাকা থেকে মাওয়া যাবে আড়াই ঘণ্টায়। আর ঢাকা থেকে খুলনা হয়ে সীমান্তে (বেনাপোল) পৌঁছাতে সময় লাগবে আট ঘণ্টা। আর বেনাপোল থেকে কোলকাতা পৌঁছাতে সময় লাগবে আরো দুই ঘণ্টা।
তিনি আরও বলেন, ঢাকা থেকে যে বাসে যাত্রী রওনা হবেন সেই বাসে করেই পৌঁছাবেন কলকতায়। পথে বাস পরিবর্তনের কোন ঝামেলা থাকবেনা বলে তাদের ভ্রমণও আনন্দদায়ক হবে। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে পদ্মা সেতু হলে সময় আরও কমে যাবে। তিনি আশা করেন ঢাকা কলকাতা রুটটি হবে জনপ্রিয়।
বাস ছাড়ার সয়ময় সূচি
গ্রীন লাইন পরিবহনের জেনারেল ম্যানেজার আব্দুস সাত্তার বলেন, সপ্তাহের প্রতি সোম, বুধ ও শুক্রবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে রাজধানীর কমলাপুর বিআরটিসি আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যাবে। আর কলকাতার সল্ট লেক করুনাময়ী আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাল থেকে প্রতি সপ্তাহে মঙ্গলবার, বৃহস্পতিবার ও শনিবার সাড়ে সাতটার দিকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসবে। ঢাকায় পৌঁছাবে রাত আটটার দিকে।
আন্তঃদেশীয় যাত্রীবাহী বাস চলাচল
বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার এসোসিয়েশন ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শ্যামলী পরিবহনের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর রমেশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, ১৯৯৮ সালে আন্তঃদেশীয় যাত্রীবাহী বাস সার্ভিস চলাচলের সিন্ধান্ত হয়। কিন্তু বিআরটিসির নিজস্ব কোন বাস না থাকায় টেন্ডার আহ্বান করা হয়। টেন্ডারের মাধ্যমে শ্যামলী পরিবহন ও বিআরটিসির যৌথ উদ্যোগে ঢাকা কলকাতা রুটে বাস সার্ভিস চালু হয়। এরপর ২০১৫ সালে শ্যামলী ও বিআরটিসির যৌথ উদ্যোগে কলকাতা ঢাকা- আগরতলার মধ্যে চালু হয় যাত্রীবাহী বাস চলা। আর ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে চালু হয় বাংলাদেশ ভারত রেল যোগযোগ। এরপর চলতি বছরের ৮ এপ্রিল খুলনা কলকাতা রুটে আন্তঃদেশীয় যাত্রীবাহী ট্রেন ও বাস সার্ভিস। সর্বশেষ আগামী ১৫ মে চালু হচ্ছে ঢাকা-খুলনা-কলকাতা যাত্রীবাহী বাস চলাচল।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৩-মে-২০১৭ইং/নোমান

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া