দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার সোতসোব আট বছর নিষিদ্ধ

স্পোর্টস রিপোর্ট :

এক সময় ওয়ানডে ক্রিকেটে এক নম্বর র্যাঙ্কধারী বোলার ছিলেন তিনি। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে থরথর করে কাঁপতো বিশ্বের তাবৎ ব্যাটসম্যান। সেই লোয়নবো সোতসোবেকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ)।

২০১৫ দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট র্যাম স্ল্যাম ক্রিকেটে ফিক্সিং করার দায়ে সোতসোবের বিরুদ্ধে এই শাস্তির ঘোষণা দিয়েছে সিএসএ।

সোতসোবে এ নিয়ে সপ্তম ক্রিকেটার, যাকে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার (সিএসএ) অ্যান্টি করাপশন ইউনিট ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। বাকি ছয়জন হলেন গুলাম বদি, আলভিরো পিটারসেন, থামি সোলোকেলি, জিন সায়েমস, পুমেলেলা মাতসিকুই এবং এথি এমবালাতি। এই ছয় জনের বিপক্ষে ২ থেকে ২০ বছর মেয়াদের নিষেধাজ্ঞার শাস্তি পেয়েছে।

সিএসএর অ্যান্টি করাপশন ইউনিটের বিচারক বার্নার্ড এনগোপির আদালতে সর্বশেষ অভিযুক্ত ক্রিকেটার ছিলেন সোতসোবে। বিচারক রায় ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দিয়েছেন, এ বিষয়ে সব কার্যক্রম শেষ করা হয়েছে। ২০১৫ সালের নভেম্বরে শুরু হয় ফিক্সিংয়ের তদন্ত। ২০ মাসের তদন্ত শেষে ধীরে ধীরে রায় ঘোষণা করতে শুরু করে স্বাধীন অ্যান্টি করাপশন ইউনিট।

বিচারক বার্নার্ড এনগোপি বলেছেন, ‘তদন্তকারী দল তাদের দীর্ঘ তদন্ত কার্যক্রম শেষ করে এনেছে। আমি সন্তুষ্ট যে সব অপরাধী বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি এ বিষয়টা ইতিমধ্যেই শেষ করে আনা হয়েছে।’

মোট ১০টি অভিযোগ আনা হয়েছে সোতসোবের নামে। সবগুলোই স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুতর হচ্ছে, একটি ম্যাচ পাতিয়েছেন তিনি। এছাড়া ফিক্সিং সম্পর্কে তার কাছে যে ডকুমেন্টস চাওয়া হয়েছে সেগুলো তিনি সরবরাহ করেননি।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১২-জুলাই-২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ