তরুণদের উদ্বেগ্ন বাড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া

তথ্য প্রযুক্তি রিপোর্ট :

ফেসবুক-টুইটারের মতো সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম তরুণ তরুণীদেরকে আরো উদ্বিগ্ন করে তুলছে বলে এক গবেষণায় বলা হয়েছে। ডিচ দ্য লেবেল নামের একটি অ্যান্টি-বুলিয়িং বা পীড়ন-বিরোধী দাতব্য সংস্থা এই গবেষণাটি চালিয়েছে।

এই গবেষণা জরিপে অংশ নেওয়াদের মধ্যে ৪০%-ই বলছে, কেউ যদি তাদের সেলফিতে লাইক না দেয়, তাহলে তারা খারাপ বোধ করে। আর ৩৫% বলছে, তাদের কি পরিমাণ ফলোয়ার বা অনুসারী তার উপর সরাসরি নির্ভর করে তাদের আত্মপ্রত্যয়ের ব্যাপারটি।

প্রতি তিনজনে একজন বলছে, তারা সারাক্ষণই সাইবার-বুলিয়িংয়ের বা পীড়নের আতঙ্কে থাকে।

একজন বিশেষজ্ঞ বলছেন, সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে শিশুরা ‘বৈরিতার সংস্কৃতির’ মধ্যে বেড়ে উঠছে।

১০ হাজার তরুণ তরুণীর উপর এই জরিপটি চালানো হয়। এদের বয়স ছিল ১২ থেকে ২০ এর মধ্যে।

এই জরিপে বেরিয়ে এসেছে সাইবার-বুলিয়িং ব্যাপক বিস্তৃতি লাভ করেছে।

৭০% অংশগ্রহণকারী স্বীকার করেছে, তারা অনলাইনে অন্যের উপর পীড়নমূলক আচরণ করে।

১৭% দাবী করেছে, তারা অনলাইনে পীড়নের স্বীকার হয়েছে।

অর্ধেকই বলেছে, তারা অনলাইনে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া খারাপ আচরণগুলো নিয়ে আলোচনা করতে চায় না।

গবেষণায় আরো জানা যাচ্ছে, ঘৃণা ছড়ানোর জন্য সবচাইতে বেশি ব্যবহৃত সোশ্যাল মিডিয়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৯-জুলাই২০১৭ইং/ প্রিন্স/ নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.