এতো জিপিএ-৫ পাসের ভীড়ে, আমার স্ট্যাটাসগুলো কি কারো চোখে পড়ে?

ডেস্ক রির্পোট।। চলতি বছর এইচএসসি পরীক্ষাতে ফেল করায় ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে মঙ্গলবার রাতে আত্মহত্যা করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্র অরিন্দম সৈকত। ২৩ তারিখে এইচএসসি পরীক্ষার ফল বের হলে অরিন্দম আইসিটিতে ফেল করে বলে জানা গেছে। নিজের এ ব্যার্থতাকে মেনে নিতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

২৪ তারিখ রাত ১০ টায় অরিন্দম তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন।

এতো জিপিএ ৫-পাশের ভীড়ে, আমার স্ট্যাটাস গুলো কী কারো চোখে পড়ে? পড়বে না। পরার কথাও না। যেদিন আমার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়বে এই নীল সাদার দুনিয়ায়, যেদিন আমার মৃত্যুর খবর পত্রিকায় ছাপবে…ঠিক সেইদিন হয়তো ‘miss you’ #RIP হ্যাশট্যাগে ভড়ে উঠবে ফেইসবুক ওয়াল। আমার সাথেই চলে যাবে আমার না বলা কথা গুলো! এইটাই তো দুনিয়া। এইটাই তো একজন মানুষের মৃত্যু পরবর্তী অন্তস্টিক্রিয়া!এটাই তো হেরে যাওয়া এক সৈনিকের প্রাপ্তি!

এর আগে ২৪ তারিখ সকাল ৮ টা ৪৪ মিনিটে আরো একটি পোষ্টে অরিন্দম লেখেন-

বিশ্বের অনেক দেশে মৃত্যুদণ্ড বা হত্যায় ঝুলন্ত উপায় ব্যবহৃত হয়। এটি কাউকে মেরে ফেলার দ্রুততম এবং সহজতম উপায়গুলির মধ্যে একটি।এটি আত্মহত্যার একটি অত্যন্ত সাধারণ উপায়।যখন লোকটি চাপা পড়ে যায় তখন তার মৃত্যুর আগে চেতনা হারাতে মাত্র ৫ থেকে ১০ সেকেন্ড সময় লাগে।

মঙ্গলবার রাতে তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসের আভাস বাস্তবে প্রমাণ করে না ফেরার দেশে চলে গেলো অরিন্দম সৈকত।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/২৬-০৭-২০১৭ইং/ আরিফুল ইসলাম 

Comments are closed.