উ. কোরিয়াকে চাপ প্রয়োগে একমত যুক্তরাষ্ট্র ও দ. কোরিয়া

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট :

উত্তর কোরিয়ার উপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগে একমত হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জা-ইন। সোমবার এক ফোনালাপে দুই নেতা এই সিদ্ধান্ত নেন। তবে জাতিসংঘের নতুন নিষেধাজ্ঞা সীমাবদ্ধ করতে চায় চীন।   ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘণ্টাব্যাপী চলা ফোনালাপে মুন ও ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার ওপর চলমান নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখতে একমত হন।

মুন বলেন, উত্তর কোরিয়াকে বোঝানোর কোনও দরকার নেই যে আলোচনার দরজা খোলা আছে। তাদের পারমাণবিক পরীক্ষা বন্ধ করতেই হবে। পৃথক এক বিবৃতিতে ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক পরীক্ষা যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপানসহ বিশ্বের অনেক দেশের জন্যই হুমকিস্বরুপ।

আগস্টের শেষ দিকে যৌথ সামরিক মহড়া চালানোর কথা রয়েছে দুই দেশের।  জুলাই মাসে পিয়ংইয়ং দুটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। দেশটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, এসব ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনও স্থানে আঘাত হানতে সক্ষম। অবশ্য বিশেষজ্ঞরা দেশটির এই দাবি নিয়ে সন্দিহান। এই পরীক্ষার নিন্দা জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র এবং জাতিসংঘ নতুন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

এই নিষেধাজ্ঞায় উত্তর কোরিযার উপর রফতানি নিষিদ্ধ ও বিনিয়োগ সীমাবদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  এতে করে উত্তর কোরিয়া বার্ষিক রফতানি কমে এক তৃতীয়াংশ হয়ে যাবে। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় কয়লা, লোহা ও সীসা রফতানি করতে পারবে না উত্তর কোরিয়া।  এছাড়া উত্তর কোরিয়ার নাগরিকরা দেশের বাইরেও কাজ করতে পারবে না এবং যৌথ ব্যবসায় অংশ নিতে পারবে না।

 মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৭-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ