বিচারের আগেই আমাকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে : নওয়াজ

Muktijoddhar Kantho , Muktijoddhar Kantho
আগস্ট ৭, ২০১৭ ১১:০৩ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট :

পাকিস্তানের শীর্ষ আদালতে অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পর পদত্যাগে বাধ্য হন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। ধারণা করা হয় পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর ইঙ্গিতে নওয়াজকে সরানো হয়েছে।

সম্প্রতি নওয়াজ শরিফ তার সে পদত্যাগ বিষয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেছেন। আজ সোমবার পাকিস্তানের একটি চ্যানেলে টিভি উপস্থাপকদের সঙ্গে কথোপকথনে এ বিষয়ে বলেন, ‘আমাকে অযোগ্য ঘোষণার সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া হয়েছিল। শুধুমাত্র একটা রায়ের প্রয়োজন ছিল। ’

শুধু তাই নয়, নওয়াজ শরিফ তার ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ এনেছেন। রবিবার এক বৈঠকে নওয়াজ বলেন, দেশের প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে তিনি সংঘাতে যেতে চান না। তবে তাকে অযোগ্য ঘোষণার পেছনের ষড়যন্ত্র শিগগিরই প্রকাশ করা হবে।

সে সময় নওয়াজ আরও বলেন, ‘এ ঘটনার পরও আমি চাপ প্রয়োগ করতে পারবো না। জবাবদিহীতার নামে আমি শোষণের শিকার হয়েছি। ’

নওয়াজ শরীফ তার পানামা পেপার্স বিষয়ে তদন্তকারীদের ওপরও সন্দেহ প্রকাশ করেন।

নওয়াজ বলেন, ‘আমার সঙ্গে কী ঘটছে সেবিষয়ে আমার পরিষ্কার ধারণা ছিল। ’

অবশ্য তিনি তার ক্ষমতাচ্যুতির পরেও আপাতত এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেবেন না বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, দেশের স্বার্থের বিরুদ্ধে যায় এ ধরনের কোনো ব্যবস্থা তিনি নেবেন না।

সম্প্রতি তিনি ইসলামাবাদ থেকে লাহোরে র‌্যালি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে একে কোনো আন্দোলন নয় বরং ‘বাড়ি ফেরার যাত্রা’ বলেই বর্ণনা করছেন। সূত্র : ডন

Comments are closed.