আবেগঘন রাতে বড় জয় পেয়েছে বার্সেলোনা!

স্পোর্টস রিপোর্ট :

ম্যাচটা ছিল আবেগের। বিমান ট্র্যাজেডির শিকার শাপেকোয়েনসের ধ্বংসস্তুপ থেকে উঠে দাঁড়ানোর ম্যাচ। ব্রাজিলিয়ান ক্লাবকে আর্থিক সহায়তায় হাত বাড়িয়ে দিতে ঐতিহ্যবাহী হোয়ান গ্যাম্পার ট্রফিতে তাদের স্বাগত জানিয়েছিল স্পেনের জায়ান্ট বার্সেলোনা। তবে মাঠের খেলায় প্রতিপক্ষকে কোনও ধরনের সুযোগ দেয়নি এর্নেস্তো ভালভারদের শিষ্যরা। নেইমার পরবর্তী অধ্যায়ে বড় জয় পেয়েছে কাতালানরা।

সোমবার মধ্যরাতে ন্যু ক্যাম্পে গোলবন্যায় ভেসে গেছে শাপেকোয়েনস। ৫-০ গোলে বার্সেলোনার জয়ে গোল করেছেন জেরার্দ দেলোফিউ, সের্হিয়ো বুসকেৎস, লিওনেল মেসি, লুই সুয়ারেস ও দেনিস সুয়ারেস। তবে ম্যাচটি শুধু একটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ ছিল না। গত বছর বিমান দুর্ঘটনায় অধিকাংশ খেলোয়াড়কে হারিয়ে বিধ্বস্ত ব্রাজিলিয়ান ক্লাব। এ ম্যাচ থেকে পাওয়া অর্থ দিয়ে ক্লাবের পাশে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার করেছিল বার্সেলোনা। এর আগে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানায় তারা।

রাতটি ছিল আবেগঘন। ওই দুর্ঘটনায় বেচে যাওয়া কিন্তু শারীরিকভাবে অক্ষম ফোলম্যান ও নেতোকে সম্মানিত করা হয়েছে প্রথম শট নিতে দিয়ে। এ সময় ন্যু ক্যাম্পে কান্নায় ভিজে গিয়েছিল অনেকের চোখ। বেচে যাওয়া আরেক খেলোয়াড় অ্যালান রুশেল সম্প্রতি মাঠে ফিরেছেন। দুর্ঘটনার পর প্রথম ম্যাচ খেলতে নামেন তিনি। বার্সেলোনার বিপক্ষে প্রথম ৩৫ মিনিট মাঠে ছিলেন তিনি।

আবেগ ধরে রাখতে পারেননি (বাঁ থেকে ডানে) ফোলম্যান, নেতো ও রুশেল

তবে খেলা শুরুর বাঁশি বাজার পর আর আবেগকে জায়গা দেননি মেসি-সুয়ারেসরা। কারণ কয়েকদিন পর রিয়ালের বিপক্ষে স্প্যানিশ সুপার কাপ। নেইমারের শূন্য জায়গায় দেলোফিউ এবং রাইট ব্যাক সের্হিয়ো রবার্তোর বদলে অ্যালেক্স ভিদালকে নিয়ে পূর্ণ শক্তির একাদশ সাজান ভালভারদে।

মাত্র ৬ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন দেলোফিউ। ১১ ও ২৩ মিনিটে বুসকেৎস ও মেসি করেন ৩-০। বিরতির ১০ মিনিট পর সুয়ারেস গোলদাতার খাতায় নাম লিখেন। আর ৭৪ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন দেনিস।

আগামী রবিবার স্প্যানিশ সুপার কাপের প্রথম লেগ। শাপেকোয়েনসের বিপক্ষে উড়ন্ত জয়ে রিয়ালকে সতর্ক করে দিলো বার্সেলোনা।খবর- মার্কা

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৮-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ