অবশেষে জানা গেল কাতারে প্রবেশের জন্য ৮০ দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম না থাকার কারণ

মোঃ দ্বীন ইসলাম খাঁন, কাতার প্রতিনিধি ।।
কাতারে প্রবেশের জন্য যে ৮০টি দেশকে বিনা ভিসার সুযোগ দেওয়া হলো, তাতে ভারতের নাম থাকলেও বাংলাদেশের নাম নেই কেন?
৮০ দেশকে সুযোগ দেওয়ার উদ্দেশ্য হলো কাতারে যেন বিদেশি ব্যবসায়ীরা আসেন এবং বিনিয়োগ করেন। বাংলাদেশি প্রবাসীদের তুলনায় কাতারে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগ অনেক গুণ বেশি। ফলে ভারতের নাম থাকাটা স্বাভাবিক।
অবৈধ ভিসা ব্যবসা, কফিলের কাছ থেকে পালিয়ে যাওয়া, ভিসার টাকা নিয়ে মারামারি, ভিজিট ভিসায় এসে আর না যাওয়া, লাখ লাখ টাকায় ভিজিট ভিসা বিক্রি করে শ্রমিক এনে প্রতারণা- এসব অপরাধে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশিরা শীর্ষে। ফলে বিনা ভিসায় প্রবেশের সুযোগ দিলে এটারও যে অপব্যবহার হবে না, সেকথা আমরা বাংলাদেশিরা কি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবো!
বাংলাদেশের মতো দরিদ্র দেশ থেকে কাতারে ঘুরতে আসবেন, এমন মানুষের সংখ্যা খুবই কম। অনেক মোটা অঙ্কের অর্থ নিয়ে কাতারে এসে বিনিয়োগ করবে, এমন সম্ভাবনাও কম। ফলে বিনা ভিসার সুযোগে যদি কেউ আসে, তবে মানুষ দলে দলে আসবে কাজের জন্য। কিন্তু চার লাখ বাংলাদেশির এই কাতারে এখন অনেক লোক কর্মহীন। নতুন বোঝা বাড়িয়ে কী লাভ!
কাতারের সঙ্গে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তানের কূটনৈতিক ও সামরিক সম্পর্ক সবচেয়ে ভালো। কিন্তু পাকিস্তানের নামও নেই এই তালিকায়। কারণ, পাকিস্তানি ব্যবসায়ীদের সংখ্যা কাতারে খুব বেশি নেই। সেখান থেকে পর্যটকও কাতারে আসবে না। তাছাড়া অপরাধীদের তালিকায় পাকিস্তানিরাও পিছিয়ে নেই। এসব হচ্ছে সামান্য কয়েকটি বাস্তবতা। কাজেই কাতারের সমালোচনায় আবেগ ঝেড়ে বাস্তবমুখী চিন্তা করুন।

 

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ডটকম/ ১২-০৮-২০১৭ইং/ অর্থ 

Comments are closed.