বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য বঙ্গবন্ধু ৪ হাজার ৬৮২ দিন জেল খেটেছেন

ডেস্ক রিপোর্ট ।। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য বঙ্গবন্ধু ৪ হাজার ৬৮২ দিন জেল খেটেছেন। বাঙালি জাতিকে তিনি উদ্বুদ্ধ করেছিলেন স্বাধীনতার জন্য। লক্ষ্য ছিল একটাই বাঙালি জাতির মুক্তি, বাংলাদেশের স্বাধীনতা’।

রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ড : দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্ত’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় প্রেসক্লাব এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ বদরুল হাসান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আবু সাঈদ, আওয়ামী লীগ নেতা মোজাফ্ফর আহমেদ পল্টু, দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ঢাকসু) সাবেক ভিপি মাহফুজা খানম, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল প্রমুখ।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাঙালি জাতির প্রত্যেককে তিনি (বঙ্গবন্ধু) পরিবারের সদস্য মনে করতেন। তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের কথা শুনলে তিনি তা বিশ্বাস করতেন না। দেশে-বিদেশে বঙ্গবন্ধুর জনপ্রিয়তা ছিল আকাশছোঁয়া। বিপুল জনপ্রিয়তার কারণেই তিনি দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের শিকার হন। বঙ্গবন্ধু সারাজীবন বাঙালি জাতির জন্য সংগ্রাম করে গেছেন। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক একটি গোষ্ঠী বাংলাদেশের স্বাধীনতা মেনে নিতে পারেনি। চক্রান্ত করে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল, আজ তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও বারবার হত্যার চক্রান্ত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্ত করে ব্যক্তি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হলেও, কেউ বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হত্যা করতে পারবে না। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, বাংলার মাটি থাকবে, বাংলাদেশের মানুষ থাকবে, ততদিন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বেঁচে থাকবে।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ