যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চালাতে উত্তর কোরীয় ৩৫ লাখ স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত!

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট :

বিশ্বজুড়ে উত্তেজনা বাড়িয়ে মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্রে ও উত্তর কোরিয়া। যেকোনো সময় যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে।

একদিকে, মার্কিন আওতাভুক্ত গুয়াম দ্বীপদেশ গুয়ামে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার হুমকি দিয়েছে কিম জং উনের উত্তর কোরিয়া। অন্যদিকে, ‘সেনা দিয়ে সমস্যা সমাধানের’ ট্যুইট করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এরমধ্যেই নতুন এক চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করল উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদপত্র রোডোং সিনমুন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কমপক্ষে ৩৫ লাখ উত্তর কোরিয়ার নাগরিক যুদ্ধে সামিল হতে চেয়ে সেনায় যোগ দিতে চেয়েছেন। এদের মধ্যে প্রাক্তন সেনা থেকে সাধারণ শ্রমিকও রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, জাতিসংঘে উত্তর কোরিয়ার রপ্তানির উপর নিষেধাজ্ঞা চাপাতে প্রস্তাব পেশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর জেরে দু’দেশের মধ্যে যুদ্ধের পরিস্থিতি আরও তীব্র হয়েছে।

উল্লেখ্য, কিম জং উনের কাছে বর্তমানে ১০ লাখ সক্রিয় সেনা বিভিন্ন ঘাঁটিতে রয়েছেন। রিজার্ভে রয়েছেন আরও ৬০ লাখ। এছাড়াও ১ হাজার যুদ্ধবিমান, ৫ হাজার সামরিক ট্যাঙ্ক এবং ৭৬টি সাবমেরিন রয়েছে পিয়ংইয়ংয়ের কাছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৬০টি পরমাণু বোমা রয়েছে কোরীয় উপদ্বীপের এই দেশের কাছে।

এর আগে, ২০১৫ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে কার্যত যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে, ১০ লাখ উত্তর কোরিয়ার বাসিন্দা সেনায় যোগ দেওয়ার আবেদন করেছিলেন। সূত্র: এই সময়

 

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৩-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ