ডেম্বেলে আর কুতিনহো ‘প্রায়’ বার্সার

স্পোর্টস রিপোর্ট :

ক্ষোভে ফুঁসছেন বার্সা-সমর্থকেরা। নেইমারকে ধরে রাখতে পারল না দল। তাঁরা চাইলেন কুতিনহো আর ডেম্বেলেকে, বার্সা নিয়ে এল পাওলিনহো। সুপার কাপে বার্সাকে নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করেছে রিয়াল। মেসি-সুয়ারেজদের অভিজ্ঞতার কাছে এসেনসিও-ভাসকেজ আক্ষরিক অর্থে ছেলেখেলা করল। আরও জোরালো হয়েছে প্রেসিডেন্ট জোসেপ বার্তেমিউয়ের পদত্যাগের দাবি। এর মধ্যে সমর্থকদের শান্ত করতে বার্তা দেওয়া হলো, ডেম্বেলে আর কুতিনহোকে দলে নিয়ে আসার কাজ প্রায় সম্পন্ন।

সোমবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে বার্তেমিউদিমিতেইয়া (বার্তেমিউ পদত্যাগ করো) হ্যাশট্যাগ দেওয়া শুরু হয়। এত বেশি হ্যাশট্যাগ দিয়ে টুইট করা হয়েছে, দিন শেষে বিশ্বব্যাপী এক নম্বর ট্রেন্ডিংয়ে (আলোচিত বিষয়) স্থান করে নেয়।

পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছেন ক্লাব মহাব্যবস্থাপক পেপ সেগুরা। তাঁর দাবি, ডেম্বেলে ও কুতিনহোর দলবদল সম্পন্ন করার ‘খুব কাছাকাছি’ আছেন তাঁরা।

শুক্রবার গোলডটকমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, লিভারপুল এখনো কুতিনহোকে ছাড়তে রাজি নয়। যদিও ব্রাজিলিয়ান প্লে-মেকার নিজেই দলবদলের আরজি জানিয়েছেন ক্লাবের কাছে। খেলোয়াড় নিজে চাইলে তাঁকে জোর করে ধরে রাখা কঠিন হবে লিভারপুলের জন্য। বার্সাও দফায় দফায় দাম বাড়াচ্ছে। কুতিনহোর জন্য দুদফা প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে ইংলিশ ক্লাবটি। যার সর্বশেষ প্রস্তাবটি ছিল ১০০ মিলিয়ন ইউরোর।

টিভি ৩ কে সেগুরা বলেছেন, ‘চুক্তি সম্পন্ন হওয়ার আগে আমি কিছু বলতে পারি না। আমি জানি, আমাদের দলকে সাহায্য করতে হবে, এর শক্তি ফিরিয়ে আনতে হবে। আমরা সেটাই করছি।’

রিয়ালের কাছে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ ব্যবধানে হারল বার্সা। মৌসুম শুরুর আগেই যেন দল কক্ষপথ হারাল। এই অবস্থায় ম্যাচ শেষে সেগুরা বলেছেন, ‘ডেম্বেলে আর কুতিনহো দুজনই চুক্তির খুব কাছাকাছি। আমরা আশা করি, তারা শেষ পর্যন্ত বার্সার জার্সিই গায়ে তুলবে।’

এখনো নিষেধাজ্ঞায় আছেন ডেম্বেলে। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডও ফিরিয়ে দিয়েছে বার্সার প্রথম প্রস্তাব।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৭-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments are closed.