ডিএসইতে টানা দুই সপ্তাহ কমল লেনদেন

অর্থনৈতিক রিপোর্ট :

পরপর দুই সপ্তাহ প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। শেষ সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন কমে আগের সপ্তাহের অর্ধেকে দাঁড়িয়েছে। তবে সপ্তাহটিতে দুই কার্যদিবস লেনদেন কম হওয়ায় দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ১৬ শতাংশের কিছু বেশি।

এর আগে টানা দুই সপ্তাহ লেনদেন কমার পর ৩০ জুলাই থেকে ৩ আগস্ট পর্যন্ত পাঁচ কার্যদিবসে ডিএসইতে ৭১ শতাংশ লেনদেন বাড়ে। এরপর আবার কমতে থাকে লেনদেনের পরিমাণ। শেষ সপ্তাহের আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমে ৮ শতাংশের ওপরে।

লেনদেন কমার পাশাপাশি শেষ সপ্তাহে ডিএসইতে মূল্যসূচকও কমেছে। গত সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪০ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট বা দশমকি ৬৯ শতাংশ কমেছে। অপর দুটি সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১৬ দশমিক ৬২ পয়েন্ট বা দশমিক ৭৮ শতাংশ কমেছে। আর ডিএসই শরিহ্ সূচক কমেছে ১০ দশমিক ৩৬ পয়েন্ট বা দশমকি ৭৯ শতাংশ।

এদিকে গত সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধনের পরিমাণও কমেছে। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৯৭ হাজার ৪৮ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল তিন লাখ ৯৭ হাজার ৩১৮ কোটি টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ২৭০ কোটি টাকা।

শেষ সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৪৪৬ কোটি ৪১ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় চার হাজার ৮৭৯ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। অর্থাৎ গত সপ্তাহে মোট লেনদেন কমেছে দুই হাজার ৪৩৩ কোটি চার লাখ টাকা বা ৪৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

মোট লেনদেনের পাশাপাশি শেষ সপ্তাহে কমেছে দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ। গত সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছে ৮১৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। যা তার আগের সপ্তাহে ছিল ৯৭৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন কমেছে ১৬০ কোটি ৪২ লাখ টাকা।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৪টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ৯০টির দাম বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ২৩০টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৪টির দাম।

গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৮৬ দশমিক ১৮ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে। এছাড়া বাকি চার দশমিক ৬৩ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, সাত দশমিক ৬৬ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত এবং এক দশমিক ৫৩ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বিবিএস ক্যাবলসের শেয়ার। কোম্পানিটির ১১৪ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের চার দশমিক ৬৮ শতাংশ।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা আইএফআইসি ব্যাংকের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৩ কোটি ৮১ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের তিন দশমিক ৪৩ শতাংশ। ৭৩ কোটি ৩২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে উত্তরা ব্যাংক।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইফাদ অটোস, সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল, সিটি ব্যাংক, ফরচুন সুজ, পূবালী ব্যাংক, গ্রামীণফোন এবং মার্কেন্টাইল ব্যাংক।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৯-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ