হবিগঞ্জে ব্যবসায়ী হত্যার দায়ে ৮ জনের ফাঁসি, ১২ জনের যাবজ্জীবন

আইন আদালত রিপোর্ট :

হবিগঞ্জে রিদওয়াদুল মহসিন টিপু (৪০) নামে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে আটজনের মৃত্যুদণ্ড ও ১২ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার বিকেলে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সুধাংশু দাশ, সুভাষ দাশ, এরশাদ, আব্দুল মালেক মালু, আব্দুর রহমান, আবুল কাশেম, আবু লাল ও মোশাররফ হোসেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- হরমুজ আলী, মোস্তাক, সানু, জাবেদ, জহির, বকুল, আমির হোসেন, দুলাল, কামাল, ছায়েদ, জহিরুল ও ঝানু। দণ্ডপ্রাপ্তরা মাধবপুর উপজেলার গাংগাইল গ্রামের বাসিন্দা।

আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর মো. লুৎফুর রহমান রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, মাধবপুর উপজেলার গাংগাইল গ্রামের ব্যবসায়ী রিদওয়ানুল মহসিন টিপুর সঙ্গে সুধাংশু সেনের জমির পানি নিষ্কাশন ও সীমানা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে তাদের মধ্যে বিভিন্ন সময় ঝগড়া-বিবাদ হয়। ওই বিরোধকে কেন্দ্র করে ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি গভীর রাতে আসামিরা টিপুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে হত্যা করে। এ সময় আসামিরা বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের মারপিট করে স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নিহত টিপুর স্ত্রী হাসিনা আক্তার বেবি বাদী হয়ে ৯ জানুয়ারি মাধবপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তদন্ত শেষে পুলিশ ২৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয়। রাষ্ট্রপক্ষে মোট ১৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ, জেরা ও রেকর্ড পর্যালোচনার পর বিচারক আজ এ রায় দেন।

এছাড়া এ মামলার তিন আসামিকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়। মামলা চলাকালে আসামি হিমাংশু মারা যান। রায় ঘোষণাকালে আদালতে আসামি সুধাংশু সেন, তার ভাই সুভাষ সেন, আব্দুল মালেক ওরফে মালু, আবু ছায়েদ ও খালাসপ্রাপ্ত নূরুল গণি শাহ ওরফে ফেরদৌস উপস্থিত ছিলেন। বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছেন।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/২৩-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ