কটিয়াদীতে ৪৪টি মন্ডপে দূর্গা পূজার প্রতিমা তৈরিতে মৃৎ শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন

মোঃ ছিদ্দিক মিয়া, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার পৌরএলাকা ও ৬টি ইউনিয়নে মোট ৪৪টি পূজামন্ডপে দূর্গাপূজার প্রতিমা তৈরীতে মৃৎ শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পারকরছেন।

মন্ডপ ঘুরে দেখা যায় মাটির অবয়বের কাজ চলছে। তারপরই শুরু হবে অলংকরণ, সজ্জায়ন ও রং প্রলেপনের কাজ। আগামী ২৮শে সেপ্টম্বর সারা দেশের একযোগে আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে পূজার কার্যক্রম শুরু হবে। দেবীর আগমনের লগ্ন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঢাকঢোল ও সানাইয়ের সুর বেজে উঠার অপেক্ষায় পূজারীগণ। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব এই দূর্গাপূজা। মৃৎ শিল্লীদের ব্যস্ততার পাশাপাশি আয়োজকরাও মন্ডপ ডেকোরেশন, আলোকসজ্জা ও নিজেদের সাজ সজ্জার কেনাকাটা নিয়ে পার করছেন ব্যস্ত সময়।

৪৪টি পূজা মন্ডপের মধ্যে পৌর এলাকায় ১৬টি, আচমিতায় ৬টি, মসূয়ায় ৫টি, মুমুরদিয়ায় ৬টি, বনগ্রামে ৪টি, ধূলদিয়ায় ৪টি, চান্দপুরে ১টি ও করগাঁও ২টি মন্ডপ তৈরীর কাজ চলছে। উপজেলার জাঁকজমক পূর্ণ মন্ডপগুলো হচ্ছে পৌরসদরের কাউন্সিলর বিপ্লব সাহার বাড়ি, পশ্চিমপাড়ায় রাধানাথ রায়ের বাড়ি, মোদকপাড়ায় চন্ডি মন্ডপ ও ধূলদিয়ায় বিরাজ কুমার সাহার বাড়ি।

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দিলিপ কুমার সাহা ও সাধারণ সম্পাদক সত্য গোপাল বণিক বলেন, ইতোমধ্যেই প্রশাসনকে পূজা মন্ডপের তালিকা দেয়া হয়েছে। সুষ্ঠু ভাবে পূজা উদযাপনের জন্য প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করি। এই উপজেলায় বিগত বছরগুলোর মতো এবারও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দূর্গাপূজা সুষ্ঠু, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হবে বলে সর্বস্তরের মানুষ আশা করেন।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/২৯-আগস্ট২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ