কটিয়াদীতে পাগলা মহিষের গুতোয় নিহত ১, আহত ১০

মোঃ ছিদ্দিক মিয়া, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী ও পাকুন্দিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় একটি পাগলা মহিষের গুতোয় লিটন মিয়া(২৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।পাকুন্দিয়া উপজেলার মান্দারকান্দি ও কটিয়াদী উপজেলার মসূয়া ইউনিয়নের মেরাতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই মহিষটির গুতা ও তাড়া খেয়ে আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। নিহত লিটন মিয়া পার্শ্ববর্তী পাকুন্দিয়া উপজেলার মান্দারকান্দি গ্রামের পিয়ার হোসেনের পুত্র।

জানা গেছে, মহিষটি গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার লোহাদি গ্রামের দরিদ্র কৃষক মোহাম্মদ আলীর। ঈদের আগের দিন মহিষটি বিক্রির জন্য হাটে নেয়ার সময় পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী জানায়, শনিবার দিবাগত রাত ১০টার সময় পার্শ্ববর্তী কাপাসিয়া থেকে পালিয়ে আসা মহিষটি পাকুন্দিয়ার বুরুদিয়া ইউনিয়নের বটতলা নামক স্থানে একটি দোকান ভাংচুর করে।এ সময়লিটন মিয়াকে গুতো দিলে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনিমারা যান। মহিষটি রাস্তার পাশে দোকান, বাড়ি-ঘর ও চলাচলকারী লোকজনকে সামনে পেলেই গুতো মারতে যায়। এ সময় ভয়ে অনেকেই এদিক সেদিক ছুটোছুটি করতে শুরু করে। এতে এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে মহিষটিকে ধাওয়া করলে মেরাতলা গ্রামের ফয়জুদ্দিনের পুকুরে গিয়ে পড়েযায়। এ সময় লোকজন মোটা রশি দিয়ে মহিষটিকে বেঁধে ফেলে। বুরুদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা রুবেল বলেন, মহিষটির গুতোয় বেশ কয়েকটি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং অন্তত ১০ জন আহত হয়। গুরুতর আহত সুলতান উদ্দিন, গোলাপ মিয়া, আবু হানিফা  ও খোকন মিয়াকে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং শাহাদত হোসেনকে কটিয়াদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ও ওসি জাকির রব্বানী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ডটকম/০৩-০৯-২০১৭ইং/ অর্থ

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ