রোহিঙ্গাদের গণহত্যার প্রমাণ মুছে ফেলতে তাদের মৃতদেহ পুড়িয়ে দিচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট ।। মিয়ানমারের সেনা ও বেসামরিক নাগরিকরা রোহিঙ্গাদের গণহত্যার প্রমাণ মুছে ফেলতে তাদের মৃতদেহগুলো জড়ো করে পুড়িয়ে দিচ্ছে। আরকান প্রজেক্ট নামে একটি সংখ্যালঘু গ্রুপ এ তথ্য জানিয়েছে।

আরকান গ্রুপ রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা নিপীড়ন ও সহিংসতার ওপর নজরদারি চালাচ্ছে। সংস্থাটির পরিচালক ক্রিস লিওয়ার  জানিয়েছেন, রাথিডাউয়ং অঞ্চলের  একটি বসতিতে তার সংগঠন ১৩০জন রোহিঙ্গাকে হত্যার তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করেছে। ওই অঞ্চলের আরো তিনটি গ্রামে আরো অর্ধশত লোককে হত্যার খবর পাওয়া গেছে।

বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘কমপক্ষে ১৩০জনকে হত্যা করা হয়েছে। তবে আমরা মনে করছি এ সংখ্যা আরো অনেক বেশি।’

লিওয়ার বলেন, ‘নিরাপত্তার বাহিনীর সদস্যরা গ্রামগুলো ঘিরে ফেলে এবং এরপর তারা নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে। তবে আমরা জানতে পেরেছি, গত বছরের অক্টোবর ও নভেম্বরে যে সহিংসতা হয়েছিল সে সময়ের তুলনায় স্থানীয় বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা সেনাবাহিনীর সঙ্গে এ সহিংসতায় আরো বেশি করে যোগ দিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ আমরা আরো জানতে পেরেছি, কোনো প্রমাণ যাতে না থাকে সেজন্য হত্যার পর সেনাবাহিনী ও বেসামরিক নাগরিকরা  মৃতদেহগুলো জড়ো করে এবং পুড়িয়ে দেয়।’

আরকান প্রজেক্টের এ প্রতিবেদনের সত্যতা কোনো নিরপেক্ষ সূত্র থেকে অবশ্য যাচাই করা যায়নি। তবে সংস্থাটি দাবি করেছে তাদের পর্যবেক্ষক দল এখনো মিয়ানমারের ভেতরে কাজ করছে।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ