সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় উত্তাল পাকুন্দিয়া

নূরুল জান্নাত মান্না, স্টাফ রিপোর্টার ।। পাকুন্দিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ইনকিলাবের উপজেলা প্রতিনিধি খন্দকার আছাদুজ্জামানের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে স্থানীয় সাংবাদিকরা। সাংবাদিকের উপর হামলার ৪ দিন পার হলেও জড়িতদের গ্রেফতারে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ধরণের আন্তরিকতা দেখা না যাওয়ায় আন্দোলন আরো জোরদার করে তুলেছে সাংবাদিকরা।

সোমবার বেলা পৌনে ১১টা থেকে পৌনে ১২টা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ গেইটের সম্মুখে কিশোরগঞ্জ-ঢাকা সড়কে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল পালন করেছে পাকুন্দিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা। পাকুন্দিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক আলহাজ্ব এম এ রশীদ ভুইয়ার সভাপতিত্বে ও কোষাধ্যক্ষ আরিফুল হাসান আরজুর সঞ্চালনায় এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তরা পাকুন্দিয়া থানা প্রশাসনকে ৪৮ ঘন্টার আলটিমেটাম দিয়ে বলেন, আগামী বুধবারের মধ্যে ঘটনায় জড়িত আসামীদের গ্রেফতার, সাংবাদিকের নামে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা প্রত্যাহার সহ পাকুন্দিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ কে প্রত্যাহার করা না হলে আগামী বৃহস্পতিবার কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে মানববন্ধন সহ কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলা হবে। এ সময় পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষনা করেন পাকুন্দিয়া প্রেসক্লাবের সহ সাধারণ সম্পাদক ও আরটিভির কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি আ.ন.ম তানভীর হায়দার ভূঁঞা।

মাবনবন্ধনে বক্তব্য রাখেন, একুশে টিভির জেলা প্রতিনিধি সাকাউদ্দিন রাজন, ইনডিপেনডেন্ট টিভির জেলা প্রতিনিধি সাইফউদ্দিন লেনিন, একাত্তর টিভির আবু তাহের, হোসেনপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রদীপ কুমার সরকার, পাকুন্দিয়া প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম হীরু, পাকুন্দিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মো.শাহজাহান মিয়া, ব্যবসায়ী এরফান উদ্দিন, সাংবাদিক সাখাওয়াত হোসেন হৃদয়, আরিফুল হাসান আরজু, এসএএম মিনহাজ উদ্দিন, রাজন সরকার, তরীকুল হাসান শাহীন, দিলিপ রবিদাস ও মুঞ্জুরুল হক প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৩১ আগস্ট বাড়ির সীমানা বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন সাংবাদিক খন্দকার আছাদুজ্জামান।

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ডটকম/০৫-০৯-২০১৭ইং/ অর্থ

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ