ইটনায় ক্যু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭ ৪:২৯ অপরাহ্ণ

ইটনা (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।। কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার জয়সিদ্ধি ইউনিয়নে ক্যু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সরুফা আক্তার (১৬) সহ তার পরিবারের ৩ জনকে আহত করে প্রতিবেশী মাঈন উদ্দিন। অন্যান্য আহতরা হলেন সরুফার মা আমেনা খাতুন (৪৫), ভাই মোস্তাকিন (১৩) ও মোজাম্মেল মিয়া (১০)। সরুফা উয়ারা পাগলশী গোয়ালহাটি গ্রামের রাশিদ মিয়া মেয়ে ও জয়সিদ্ধি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রতিবেশী দয়াল মিয়া ছেলে মাঈন উদ্দিন স্কুলে যাওয়া আসার পথে সরুফাকে প্রায়ই উত্যক্ত ও ক্যু প্রস্তাব দিত। পরে এ বিষয়ে মাঈন উদ্দিনকে আসামী করে ছাত্রীর মা বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে গত ২রা আগষ্ট একটি মামলা দায়ের করে। যাহার মামলা নং-৪৯০/১৭। মামলাটি বিচারাধীন থাকায় আসামী মাঈন উদ্দিন মামলা তুলে নেওয়ার জন্য সরুফার পরিবারকে হুমকি দিয়ে আসছিল। এরই জের ধরে বূধবার সকালে মাঈন উদ্দিনের নেতৃত্বে দা, লাঠি নিয়ে সরুফার বাড়ী ঘরে হামলা করে সরুফাকে মাথায় ও বাম হাতে কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় পরিবারের অন্য সদস্যরা বাঁধা দিলে তাদেরকেও আহত করা হয়। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে ইটনা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।

ইটনা থানার ওসি তদন্ত মোঃ জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ঘটনাটি মর্মান্তিক অভিযোগ পেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৬-০৯-২০১৭ইং/ অর্থ

Comments are closed.