মাদক সেবনে বাধা প্রদান করায় কিশোরগঞ্জে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর বাড়ীতে হামলা ও লুটপাট

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭ ৭:০৪ অপরাহ্ণ

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি ।। কিশোরগঞ্জের সদর উপজেলার স্বল্প মারিয়া গ্রামে মাদকসেবীদের মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর বাড়ীতে হামলা করে লুটপাট করেছে মাদকসেবীরা।

লিখিত অভিযোগ ও থানা সূত্রে জানা যায়, স্বল্প মারিয়া গ্রামের তারা মিয়ার দোকানে প্রতিদিন দিবারাত্রী জুয়া খেলা ও মাদকদ্রব্য বিক্রয় করে আসছে দীর্ঘদিন যাবৎ। সম্প্রতি এই চক্রের মোঃ সানি মিয়া, শুক্কুর মিয়া ও মজিবুর দোকান ছাড়াও বন্দের বাড়ীর নিরব রাস্তায় বিভিন্ন মাদকসেবীদের নিকট মাদক বিক্রয় করে ও মাদকসেবীদের নিয়ে উক্ত রাস্তায় মাদকসেবন করে। উক্ত ঘটনায় বন্দের বাড়ীর পোল্ট্রি ব্যবসায়ী মতি মিয়ার পুত্রসহ এলাকার কয়েকজন তাদেরকে বাধা প্রদান করায় গত সোমবার রাতে মাদকসেবী ও জুয়াড়ীরা মিলে মতি মিয়ার পোল্ট্রি ফার্ম ও বসতঘরে হামলা চালিয়ে ঘরে থাকা নগদ ৪ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার ও মোবাইলসহ সিঙ্গাপুর থেকে আনা বিভিন্ন মালামাল লুটে নেয় ও বাড়ির মূল গেইট, কলাবাগান, বসতঘরের দরজা, জানালা, সুকেচ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ভাংচুর করেছে।

উক্ত ঘটনায় স্বল্প মারিয়া গ্রামের মনির উদ্দিনের পুত্র মতি মিয়া বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় ১০ জনকে আসামী করে অভিযোগ দায়ের করেছে। উক্ত ঘটনায় একই গ্রামের দুলাল মিয়ার পুত্র শাহীন, মাদক ব্যবসায়ী সানি, সুন্দর আলীর পুত্র মাদকসেবনকারী শুক্কুর মিয়া, রহমানের পুত্র হোসেন, মজিবুর, মঞ্জিল মিয়ার পুত্র সবুজ ও এক সময়ের কিশোরগঞ্জের সুবোধ বিড়ি ফ্যাক্টরির ব্যান্ড রোল চুরির অন্যতম হোতা ও ইউনিভার্সেল সিনেমা হলের টিকেট কালোবাজারির অন্যতম নেতা আইয়ুব আলীর পুত্র কালামকে আসামী করা হয়।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে কিশোরগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার শওকত জাহান বলেন, উক্ত বিষয়ে অভিযেগা পেয়েছি এবং তদন্ত করার জন্য দায়িত্বরত একজন অফিসারকে এলাকায় প্রেরণ করেছি।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৭-০৯-২০১৭ইং/ অর্থ

Comments are closed.