কটিয়াদীতে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্বামীর স্বজনদের হামলা, স্ত্রীসহ আহত ১০

মোঃ ছিদ্দিক মিয়া, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : যৌতুকের টাকা না পেয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে স্ত্রীসহ অন্তত ১০জনকে আহত করেছে স্বামীর স্বজনেরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় কটিয়াদী উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের ভাগেরহাটি গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নজরুল ইসলাম (৩৫) নামে একজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং হিরন মিয়া (৩০), মো. কাঞ্চন (২৫) ও কিরন মিয়া (২০) নামে তিনজনকে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের মধ্যে স্ত্রী শাবনুর আক্তার (১৮), বোন জেসমিন আক্তার (২২) ও মা রাবিয়া খাতুন (৫৫) কে নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিকরা হয়েছে।

পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, মাস চারেক আগে করগাঁওয়ের ভাগলপুর হাটি বাচ্চু মার্কেটের দক্ষিণ গ্রামে মৃত ইসমাইল মিয়ার মেয়ে শাবনুরের সঙ্গে ভাগের হাটির গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে সোহেলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য শ্বশুরবাড়ির লোকজন শাবনুরকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিল। কিন্তু শাবনুরের দরিদ্রভাইয়েরা শ্বশুরবাড়ির যৌতুকের দাবি মেটাতে পারেননি। এ পরিস্থিতিতে শাবনুরকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তার বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। শুক্রবার সন্ধ্যায় শাবনুর তার স্বজনদের নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে গেলে শ্বশুর বাড়ির লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়।

এ ব্যাপারে কটিয়াদী থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী জানান, স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্ব নিরসনে স্থানীয়দের নিয়ে সালিশ বৈঠক চলাকালে স্বামীর বাড়ির লোকজন মারপিট করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১০-সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান

Comments are closed.