অবৈধভাবে চাল মজুতের প্রমাণ পেলেই গ্রেপ্তার : বাণিজ্যমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট ।। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, অবৈধভাবে চাল মজুতের বিরুদ্ধে সরকার অভিযান শুরু করেছে। যেসব মজুতদারের গোডাউনে চাল মজুতের প্রমাণ পাওয়া যাবে তাদের গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হবে।

বুধবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর অফিস কক্ষে  সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, বন্যায় ফসলহানীর পর চাল ও গমের ওপর নির্ধারিত ২৮ শতাংশ ট্যারিফ হ্রাস করে প্রথমে ১০ শতাংশ এবং পরে ২ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে। ফলে ব্যক্তি পর্যায়েও চাল-গম আমদানি করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, দেশে চালের কোনো ঘাটতি নেই। বর্তমানে দেশে ৬ লাখ ৬১ হাজার টন চাল মজুত রয়েছে। এর মধ্যে ৪ লাখ ৪৭ হাজার টন চাল গুদামে মজুত রয়েছে। আর ১ লাখ ১৪ হাজার টন চাল জাহাজে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে।

আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে চাল রপ্তানি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কিছুই জানি না। বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বাংলাদেশে নেই। আর ডেপুটি হাইকমিশনার কক্সবাজারের উখিয়ায় আছেন। তিনি ঢাকায় ফেরার পর তার সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া যাবে।

কৃষকের স্বার্থ রক্ষায় সরকার সতর্ক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, অতিরিক্ত চাল আমদানির কারণে কৃষক যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে বিষয়ে সরকার সচেতন আছে এবং কৃষকের স্বার্থ রক্ষায়ও সচেতন।

বন্যার পর ফসল ভালো হয়। আগামী বছর আবারও খাদ্যে উদ্বৃত্ত হবে দেশ বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ