কিশোরগঞ্জে শিশু কন্যাকে হত্যার দায়ে বাবার মৃত্যুদণ্ড

মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ।। কিশোরগঞ্জে দুই বছরের শিশু কন্যাকে গলা কেটে হত্যার দায়ে বাবা আবুল হোসেনকে (২৮) মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। ১৩ সেপ্টেম্বর বুধবার (আজ) দুপুরে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শাহজাহান কবির এ রায় দেন।

দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আবুল হোসেন জেলার ভৈরব উপজেলার শম্ভুপুর রেলগেট এলাকার মোহাম্মদ নূর আলী মিয়ার ছেলে। রায় ঘোষনার সময় শিশু কন্যাকে হত্যাকারী আবুল হোসেন আদালতে উপস্হিত ছিলেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ৩ এপ্রিল সকালে জেলার ভৈরব উপজেলার গাজী ট্যাংক পশ্চিমপাড়া এলাকায় আসামি নিজ শ্বশুরবাড়িতে দুই বছরের শিশু সুমাইয়াকে গলায় ধারালো ব্লেড দিয়ে হত্যা করেন। এ সময় বাড়ির লোকজন সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় ঘটনার দিনই সুমাইয়ার মা সুরাইয়া বেগম বাদী হয়ে আবুল হোসেনকে আসামি করে ভৈরব থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরদিন ৪ এপ্রিল আবুল হোসেন বিচারিক হাকিমের কাছে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।জবানবন্দিতে আবুল হোসেন তাঁর স্ত্রী পরকীয়ায় জড়িত বলে তাঁর সন্দেহের কথা এবং এ কারণে নিজ সন্তানকে হত্যার কথা জানান।

মামলার তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ১ জুন ভৈরব থানার উপ-পরিদর্শক সৈয়দ আবদুল মান্নান অভিযোগপত্র জমা দেন। শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় বুধবার দুপুরে বিচারক এ রায় দেন।
রাষ্ট্রপক্ষে সৈয়দ মোহাম্মদ শাহজাহান ও আসামিপক্ষে অশোক সরকার মামলাটি পরিচালনা করেন।

 

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৩-সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান

Comments are closed.