বগুড়ায় দাদন ব্যবসায়ী শিমুলসহ গ্রেফতার ৩

বগুড়া, জেলা প্রতিবেদক : বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় দাদন ব্যবসার অভিযোগে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) উপজেলা চেয়ারম্যান আহসানুল তৈয়ব জাকিরের জ্যাঠাতো ভাই শিমুল আকন্দ ও তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে। বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার বরিয়াহাট স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক রওশন আরা নারগিছ ও সোনাতলা উপজেলার দক্ষিন চরপাড়া সারকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শাহিদুল ইসলামের পৃথক মামলায় সোমবার রাতে তাদের উপজেলা সদর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শিমুল আকন্দ উপজেলা সদরের কাবিলপুর গ্রামের মৃত ছামচুদ্দিন আকন্দের ছেলে। এছাড়াও দাদন ব্যবসার আটক তার দুই কর্মচারি জুলফিকার মাহমুদ লিটন (৪৮) এবং নুরনবী ওরফে বজলু (৪৬)। মঙ্গলবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়।

দাদন গ্রহীতা শাহিদুল ইসলাম বলেন, ২০০৮ সালে দাদন ব্যবসায়ী শিমুল আকন্দের কাছ থেকে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা দাদন নেন। এসময় তার বেতনের চেক বই দাদন ব্যবসায়ীকে দেন। এরপর থেকে ২০১৭ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত তার বেতনের ১৬ লাখ ৭৭ হাজার ৯৮৬ টাকা ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে। এরপরেও আরও বিভিন্ন জায়গা থেকে ধার দেনা করে টাকা পরিশোধ করার পরও টাকা শোধ হয়নি বলে আবার নতুনভাবে টাকা নেওয়ার ফন্দি করে। এ কারণে সোমবার শিমুল আকন্দ ও তার কর্মচারী জুলফিকার রহমান লিটনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বগুড়ার সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শরিফুল ইসলাম বলেন, ডিবি পুলিশের সহযোগীতায় আসামিদের গ্রেফতার করে মঙ্গলবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৩-সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ