রিয়ালকে জয় এনে দিল রোনালদো

স্পোর্টস রিপোর্ট : শতভাগ ফিট, তবু বসে থাকতে হয়েছে মাঠের বাইরে। টানা তিন ম্যাচ দর্শক হয়ে থাকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো সব রাগ উগড়ে দিলেন অ্যাপোয়েল নিকোশিয়ার ওপর। চ্যাম্পিয়নস লিগের গত মৌসুম শেষ করেছিলেন যে জায়গায়, নতুন মৌসুম শুরু করলেন ঠিক সেই জায়গা থেকেই। ফিরেই গোল করলেন রোনালদো, যাতে রিয়াল মাদ্রিদ পেল সহজ জয়। পর্তুগিজ অধিনায়কের জোড়া লক্ষ্যভেদের সঙ্গে সের্হিয়ো রামোসের গোলে সাইপ্রাসের দলটিকে রিয়াল হারিয়েছে ৩-০ গোলে।

চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই রোনালদোর জাদু। ব্যতিক্রম হলো না অ্যাপোয়েলের বিপক্ষেও। পুরনো সেই রূপেই দেখা মিলল তার। যাতে ঘরের মাঠের হতাশার বৃত্ত ভেঙে বের হলো রিয়াল। লা লিগার শেষ দুই ম্যাচ ’লস ব্লাঙ্কোস’ খেলেছে সান্তিয়গো বার্নাব্যুতে, দুটো ম্যাচেই তারা মাঠ ছেড়েছে ড্র করেছে। চ্যাম্পিয়নস লিগে এসে সেই হতাশা দূর করলেন রোনালদো দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল রিয়াল। গোল পেতেও দেরি হয়নি তাদের। ১২তম মিনিটে স্বাগতিকদের এগিয়ে নেন রোনালদো। গ্যারেথ বেলের চমৎকার ক্রস ডান প্রান্ত থেকে আড়াআড়ি শটে বল জালে জড়ান চারবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। খানিক পর ওই একই পজিশন থেকে হেড করেছিলেন রোনালদো, তবে এবার বল লাগে বাইরের জালে।

প্রথমার্ধে আরও বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করেছিল রিয়াল, তবে কাজে আসেনি সেগুলো। দ্বিতীয়ার্ধের জন্যই হয়তো জমা রেখেছিল সব!

এটা বলার কারণও আছে। কারণ বিরতি থেকে ঘুরে এসেই অ্যাপোয়েলের ওপর চড়াও হয় রিয়াল। ৪৮ মিনিটেই তো রিয়াল পেয়ে যেতে পারতো দ্বিতীয় গোল, যখন দানি কারভাহালের ক্রস বক্সের ভেতর থেকে ভলি করেছিলেন রোনালদো। বল বারে লেগে গোললাইন বরাবর মাটিতে পড়লে রোনালদো আবেদন করেন গোলের। যদিও রেফারি সাড়া দেননি সেই আবেদনে।

আক্ষেপে পোড়া রোনালদোকে গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল মাত্র কয়েক মিনিট। ৫১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন পর্তুগিজ যুবরাজ। বেলের ক্রস অ্যাপোয়েলের এক ডিফেন্ডার ‘ক্লিয়ার’ করার সময় বক্সের ভেতর লাগে তার হাতে, যে কারণে রেফারি হ্যান্ডবলের বাঁশি বাজালে রিয়াল পায় পেনাল্টি। স্পট কিক থেকে পাওয়া সুবর্ণ সুযোগ কি আর মিস করেন রোনালদো!

৫৪ মিনিটে আরেকটি ভালো সুযোগ তৈরি করেছিল রিয়াল। এবারও উৎসে সেই রোনালদো। অ্যাপোয়েলের বক্সের ভেতর বল নিয়ে ঢুকে পড়লেও প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের কড়া মার্কিংয়ে তিনি সুবিধা করতে পারেননি, তবে বল পেয়ে যান ইসকো। স্প্যানিশ মিডফিল্ডার যতিও সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি।

রিয়ালের আক্রমণ যেন বাড়ে তাতে আরও। তৃতীয় গোলটাও পেয়ে যায় কিছুক্ষণ পর। এবার স্কোরশিটে নাম তোলেন সের্হিয়ো রামোস। মার্সেলোর ক্রস গ্যারেথ বেল হেড করলে অ্যাপোয়েলের এক ডিফেন্ডারের মাথায় লেগে আসে রামোসের কাছে। রিয়াল অধিনায়ক দুর্দান্ত বাইসাইকেল কিকে বল জড়ান জালে।

৬৬ মিনিটে হ্যাটট্রিকটাও পূরণ করে ফেলতে পারতেন রোনালদো। যদিও হয়নি। বাঁ প্রান্তে ফাঁকায় বল পেয়ে শটও করেছিলেন গোলমুখে, কিন্তু অ্যাপোয়েল গোলরক্ষক সহজেই ঠেকিয়ে দেন তার শট।

তাতে আর গোল না পেলেও জয় পেতে কোনও সমস্যা হয়নি রিয়ালের। রোনালদো জাদুতে চ্যাম্পিয়নস লিগটা শুরু করেছে তারা চ্যাম্পিয়নের মতো করেই। গোল ডটকম

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ