বিজ্ঞানীদের রাতের ঘুম কেড়ে নিল অজানা সামুদ্রিক দানব!

রকমারি রিপোর্ট : চোখ নেই। মুখের আকারও সুস্পষ্ট নয়।

তবে মোটা চামড়ার শক্ত চোয়াল থেকে বেরিয়ে আসা  ধারালো করাতের মতো দাঁত প্রকাশ করছে তার হিংস্রতা।

প্রাণীটিকে দানব আকৃতি বললে ভুল হবে না। দেহের শেষাংশে হাল্কা কাঁটা বিশেষ লেজ। মোটা, পুরু চামড়া। হিংস্র মুখ। গালভেসস্টোন থেকে প্রায় ১৫ মাইল দূরে টেক্সাসের সৈকত থেকে উদ্ধার হয় এই সামুদ্রিক প্রাণীটি।

‘আর্থ টাচ নিউজ’ নামে একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে প্রাণী বিশেষজ্ঞ তেঘা জানিয়েছেন, এটি আসলে স্নেক ইল অথবা এপ্লাটফিস চোলিওডাস প্রজাতির প্রাণী। সহজভাবে বলতে গেলে, সর্পাকৃতি পাঁকাল মাছের মতন। সমুদ্রের ১০০-৩০০ ফুট তলায় এদের বসবাস। সমুদ্রের সব ধরনের ছোট মাছই তাদের অন্যতম খাদ্য।

প্রীতি দেশাই নামে ন্যাশানাল অডবন সোসাইটির এক কর্মকর্তা টুইটারে এই ভয়াল প্রাণীটির ছবি পোস্ট করেন। তারপরই মুহূর্তে ভাইরাল হওয়া এই প্রাণীর ছবি নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় দুনিয়ায়। রাতের ঘুম কেড়ে নেয় বিজ্ঞানীদের।

 

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ