কিশোরগঞ্জ সদর - কিশোরগঞ্জের খবর - সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৭ ৩:৫৯ অপরাহ্ণ

কিশোরগঞ্জে এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : কিশোরগঞ্জের আইয়ুব হেনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।

জানা গেছে,কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার লতিবাবাদ নামাপাড়া এলাকার মাদকাসক্ত ও সন্ত্রাসীদের সাথে বিরোধ চলে আসছিল একই এলাকার মো.কাউছার আকন্দ লিটনের ছেলে আইয়ুব হেনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেক্ট্রনিক্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহাদাৎ আকন্দের। শাহাদাৎ আকন্দের বাড়িতে গিয়ে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছিল ওই সন্ত্রাসীরা।

এসবের জের ধরে গত ৫ সেপ্টেম্বর লতিবাবাদের উজ্জলের নেতৃত্বে ৭/৮ জনের একটি সন্ত্রাসী দল দেশিয় সজ্জিত হয়ে ওই শিক্ষার্থীর বাড়িতে অনধিকার চর্চায় প্রবেশ করে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও ঘড়ে থাকা মালামালের ক্ষতি সাধন করে। তারা একটি ল্যপটপ, চেয়ার টেবিল ও মোবাইল ফোনও ভাংচুর করে । এতে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে। এ সময় তাদের তান্ডবলীলার বাঁধা দিতে আসলে সন্ত্রাসীরা শিক্ষার্থী শাহাদাৎ আকন্দকে মেরে ফেলার লক্ষে গলায় ছুরিকাঘাত করে। এতে সে গুরুতর আহত হন। পরে এলাকাবাসী তাকে উদ্বার করে জেলা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থা বেগতিক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার গলায় ছোট বড় ১৩টি রগ কাটা গেছে । বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় শিক্ষার্থী শাহাদাৎ আকন্দের পিতা মো.কাউছার আকন্দ বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/সেপ্টেম্বর২০১৭ইং/নোমান