জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে শিশু মরিয়ম, বগুড়ায় ২৫দিন হাসপাতালে

বগুড়া, জেলা প্রতিবেদক : টক্সি ইপিডারমা নিউরোসাইসিস রোগে আক্রান্ত হয়ে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩ নং শিশু ওয়ার্ডের ২৬ নং বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে শিশু মরিয়ম (২)। টানা ২৫ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি ওই শিশু। কিন্তু চিকিৎসায় এখনো সুস্থ না হওয়ায় চরম হতাশায় পড়েছে শিশু মরিয়মের পরিবার।

শিশুটির উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হলেও দরিদ্র পরিবারের পক্ষে তা সম্ভব নয়। শিশু কন্যার উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সহ সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্টান, সমাজের দানশীল ব্যাক্তিদের কাছে মানবিক সাহায্য সহযোগিতার আবেদন জানিয়েছেন মরিয়মের পিতা দরিদ্র কৃষক মন্ধসঢ়;জুরুল ইসলাম।

সরেজমিনে হাসপাতালে জানা গেছে, সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলার গলাজানী গ্রামের দরিদ্র কৃষক মন্ধসঢ়;জুরুল ইসলামের শিশু কন্যা মরিয়ম তার বয়স ২ বছর। প্রায় একমাস পূর্বে শিশু মরিয়ম টক্সি ইপিডারমা নিউরোসাইসিস রোগে আক্রান্ত হয়। ২৫ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করলেও কোনো উন্নতি হচ্ছেনা। মরিয়মের এই রোগ দেখা গেলে তাকে গত ০৮-০৯- ১৭ ইং তারিখে শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

কান্না জড়িত কন্ঠে শিশুটির পিতা এপ্রতিবেদকে বলেন, আমার মেয়েটা (মরিয়ম) এখনো পৃথিবীর কিছুই দেখেনি। আপনারা আমার মেয়েটারে বাঁচান। আমি গরীব মানুষ। আমার মেয়ের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকা প্রয়োজন। ২৫দিন হলো হাসপাতালে ভর্তি করে রেখেছি। তবুও উন্নতী নেই। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে মরিয়ম। শিশুটির পরিবার সহায়-সম্বল বিক্রি করে চিকিৎসা করেও কোনো আশার আলো দেখতে না পেয়ে এখন দিশেহারা।

শিশুটির পিতা বলেন, শুনেছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক গরীব মানুষের চিকিৎসাভার নিয়েছেন। কয়দিন আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রীও একই আলোচনায় আছেন। তিনি শিশু কন্যার চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

এছাড়া শিশুটিকে বাচতে সবার নিকট সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন শিশুটির পিতা। বিকাশ নাম্বার- ০১৭৫৮ ৪৮৩৭৩৮ (কৃষক মন্ধসজুরুল)।

Comments are closed.