বাংলাদেশকে ধন্যবাদ দিলেন ডেমি লোভেটো

Muktijoddhar Kantho , Muktijoddhar Kantho
অক্টোবর ৩, ২০১৭ ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ

বিনোদন রিপোর্ট : গ্র্যামি মনোনীত বিখ্যাত গায়িকা ডেমি লোভেটোর ষষ্ঠ একক অ্যালবাম ‘টেল মি ইউ লাভ মি’ এখন চাহিদার দিক দিয়ে বিশ্বের ৪০টি দেশে শীর্ষে আছে। এ তালিকায় আছে বাংলাদেশও! তাই বাংলাদেশকে আলাদাভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার (২ অক্টোবর) দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ডেমি লোভেটোর অফিসিয়াল পেজে একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে। এর ওপরে লেখা— ‘থ্যাংক ইউ বাংলাদেশ’। নিচে বক্সের ভেতর ২৫ বছর বয়সী এই গায়িকার ছবি, তার ওপর উল্লেখ করা— ‘হ্যাশ ওয়ান’। একেবারে নিচে দেওয়া আছে অ্যালবামের নাম।

ছবিটির পোস্টে অ্যালবামটি চাহিদার দিক দিয়ে এক নম্বরে জানিয়ে ডেমি লিখেছেন, ‘বাংলাদেশে এক নম্বর!!! এই অর্জনের জন্য প্রত্যেককে ধন্যবাদ। আপনাদের ভালোবাসি।’

পেজটিতে লাইকের সংখ্যা ৩ কোটি ৭৭ লাখ ১৫ হাজার ৪১৯টি। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ছবিটিতে লাইক পড়েছে ৮ হাজার ৩০০টি। এটি শেয়ার হয়েছে ৯৩২ বার। কমেন্ট এসেছে ৯২৯টি। এগুলোর বেশিরভাগেই বাংলাদেশিদের অনেকে ডেমির গানের প্রশংসা করেছেন। বেশ কয়েকজন বাংলাদেশের কথা বলায় তাকে ধন্যবাদ জানান।

এর আগে একই ছবি পোস্ট করে ডেমি লোভেটো জানান, ‘টেল মি ইউ লাভ মি’ এখন চাহিদার দিক দিয়ে বিশ্বের ৪০টি দেশে শীর্ষে আছে। তবে তিনি নির্দিষ্ট করে জানাননি কোন প্ল্যাটফর্মে এটি এক নম্বরে আছে। ধারণা করা যায়, আইটিউন্সের কথাই বলেছেন মার্কিন এই তারকা।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর এটি বাজারে ছেড়েছে আইল্যান্ড, সেফহাউস ও হলিউড রেকর্ডস। এতে আছে পপ ও রিদমঅ্যান্ডব্লুজ (আরএনবি) ধাঁচের গান। এর সিঙ্গেল ‘সরি নট সরি’ প্রকাশিত হয় গত ১১ জুলাই।

গানে পরিচিতি বেশি থাকলেও ডেমি লোভেটোর শুরুটা হয়েছিল শিশুতোষ টিভি সিরিজ ‘বার্নি অ্যান্ড ফ্রেন্ডস’-এ কাজ করে। ২০০৮ সালে ডিজনি চ্যানেলের ‘ক্যাম্প রক’ ছবিতে অভিনয়ের সুবাদে জনপ্রিয়তা পান তিনি। এরপর তার প্রথম সিঙ্গেল ‘দিস ইজ মি’ বিলবোর্ড হট হান্ড্রেড চার্টের ৯ নম্বরে স্থান করে নেয়। ফলে হলিউড রেকর্ডসের সঙ্গে চুক্তি পেয়ে যান তিনি।

ডেমি লোভেটোর প্রথম একক অ্যালবাম ‘ডোন্ট ফরগেট’ (২০০৮) প্রকাশের পরপরই বিলবোর্ড টু হান্ড্রেড চার্টের দুই নম্বরে জায়গা করে নেয়। এই চার্টের শীর্ষে স্থান পায় তার দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘হিয়ার উই গো অ্যাগেইন’ (২০০৯)। তার পরের অ্যালবামগুলো হলো— ‘আনব্রোকেন’ (২০১১), ‘ডেমি’ (২০১৩) ও ‘কনফিডেন্ট’ (২০১৫)।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৩অক্টোবর২০১৭ইং/নোমান

Comments are closed.