কিশোরগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ।। কিশোরগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে শাহীন মিয়া নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (৪ অক্টোবর) কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন ভূঁইয়া এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত শাহীন মিয়ার জেলার বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর ইউনিয়নের তাতালচর গ্রামের বাসিন্দা।

একইসঙ্গে পলাতক দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি শাহীন মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড,অনাদায়ে আরো এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে ধর্ষণের ফলে জন্ম নেওয়া শিশু পিতৃত্ব,উত্তরাধিকার হিসেবে সম্পত্তির অংশ দেওয়ার জন্য আসামিকে নির্দেশ দেন আদালত। দায়িত্ব পালনে আসামি অপারগ হলে রাষ্ট্রীয়ভাবে সেই অধিকার নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মা ঢাকা চাকরী করায় তার আট বছর বয়সী ছোট ভাইকে নিয়ে পিতৃহারা কিশোরী গ্রামের বাড়িতে থাকত। এই সুযোগে প্রতিবেশী শাহীন তাকে প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিত। এক পর্যায়ে ২০১২ সালের ২৫ মার্চ রাতে কিশোরীর বাড়িতে ঢুকে শাহীন তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ফলে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে গেলে ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল একটি মেয়ে শিশু জন্ম নেয়। এ ঘটনায় কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ২০১৩ সালের ১৬জুন শাহীন মিয়াকে আসামি করে একটি মামলা রুজু করা হয়। মামলার পর থেকে আসামি শাহীন মিয়া পলাতক রয়েছেন।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৪-১০-২০১৭ং/ অর্থ

Comments are closed.