‘প্রধান বিচারপতিকে ছুটির নামে জালিয়াতি করা হয়েছে’

রাজনৈতিক রিপোর্ট : বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে গুণ্ডামির মাধ্যমে জোরপূর্বক এক মাসের ছুটি দিয়ে গোটা বিচার ব্যবস্থাকে নিজেদের আয়ত্তে নিয়েছে সরকার। আসলে প্রধান বিচারপতিকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার এটি প্রথম পদক্ষেপ। এখন নির্বাহী বিভাগ, বিচার বিভাগ ও আইন বিভাগের মধ্যে আর কোনো পার্থক্য নেই। সব বিভাগের ওপরই একক কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেল শেখ হাসিনার। মানুষের বিচার প্রার্থনার শেষ আশ্রয়স্থলটুকু আর থাকল না। এর ফলে আগামী দিনের সব রায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকেই নিয়ন্ত্রণ হবে বলে জনমনে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। ‘ আজ শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।

তিনি আরো বলেন, ‘কারণ প্রধান বিচারপতিকে হুমকি দিয়ে ছুটি নিতে বাধ্য করা অথবা ছুটির নামে জালিয়াতি করা হয়েছে, সেটি নজিরবিহীন। যেভাবে তাঁকে নাজেহাল করা হয়েছে, যেভাবে বিচার বিভাগের সম্মান, মর্যাদা ও ভাবমূর্তি নস্যাৎ হয়েছে, তাতে বিচার বিভাগের সম্মান ও ভাবমূর্তি বলে কিছু অবশিষ্ট রইল না। এই সরকারের দুঃসহ দৌরাত্ম্যের বিরুদ্ধে সকলে মিলে সোচ্চার না হলে ভবিষ্যতে বিরোধী দল, মত ও বিশ্বাসের লোকদেরসহ ন্যায় বিচার পাওয়ার আরা কোনো সম্ভাবনাই থাকবে না। ‘

প্রধান বিচারপতি অসুস্থ নয় দাবি করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘বাস্তবে প্রধান বিচারপতি অসুস্থ নন।

গত পরশু তিনি যখন মন্দিরে গেছেন, তখন তাঁর সাথে যাদের দেখা হয়েছিল তারা পরিষ্কার করে বলেছেন, প্রধান বিচারপতিকে দেখে অসুস্থ মনে হয়নি। সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তারা তাঁর বাসভবনে দেখা করে গণমাধ্যমকে বলেছেন, প্রধান বিচারপতিকে দেখে অসুস্থ মনে হয়নি। ‘

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৭অক্টোবর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ