বিজিএমইএ ভবন ৭ মাসের মধ্যে ভাঙতেই হবে

আইন আদালত রিপোর্ট : হাতিরঝিলে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বহুতল বিজিএমইএ ভবন সাত মাসের মধ্যে ভাঙার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। আদালত বলেছেন, শেষবারের মতো সময় দেয়া হলো। আর কোনো সময় দেয়া হবেনা। এই সময়ের মধ্যে ভবন অপসারণ করতে হবে। আদালতের আদেশ মেনে চলতে হবে।
রবিবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আব্দুল ওয়াহাব মিঞার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। এর আগে বিজিএমইএ’র আইনজীবী অ্যাডভোকেট কামরুল হক সিদ্দিকী এক বছর সময় চেয়ে আদালতে আবেদন জানান। তিনি বলেন, সরকার বিজিএমইএ’কে জমি দিয়েছে। আমরা জমির মূল্য পরিশোধ করেছি। এখন অবকাঠামো নির্মাণ করবো। এজন্য সময় প্রয়োজন।
এ পর্যায়ে আদালত বলেন, আপনাদের ইতিপূর্বে আরো কয়েকবার সময় দেয়া হয়েছে। কেন ভবন অপসারণ করেননি? আপনারা যদি মনে করে থাকেন, আদালতে এসে সময় চাইবেন আর সময় দেয়া হবে; এ ধরনে মনোভাব পোষণ করা ঠিক না।
এরপরই আদালত সাত মাস সময় দিয়ে ভবন ভাঙার আদেশ প্রতিপালন করতে বলেন।
এর আগে সুপ্রিমকোর্টের আপিল এই অবৈধ ভবনটি ভাঙতে বিজিএমইএকে ৯০ দিনের সময় দিয়েছিলো। যদি ওই সময়ে মধ্যে ভবন না ভাঙে তাহলে, রাজউককে ভেঙে ফেলতে বলা হয়। ওই সময়সীমা পার হওয়ার আগেই বিজিএমইএ আপিল বিভাগে এক বছর সময় চেয়ে আবেদন করে।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০৮অক্টোবর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ