ইটনায় যৌন হয়রানির দায়ে ২ শিক্ষকের কারাদণ্ড

মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ।। কিশোরগঞ্জের ইটনায় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে দুই শিক্ষককে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) ইটনার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান খানের নেতৃত্বে গঠিত ভ্রাম্যমাণ তাদের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, ইটনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ও অপরজন পার্শ্ববর্তী মহেশ চন্দ্র মডেল শিক্ষা নিকেতনের শরীরচর্চা শিক্ষক মো. সাইফুল ইসলাম। দু’জনেই বিবাহিত বলে জানা গেছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, ওই দুই শিক্ষক ঘনিষ্ঠ বন্ধু। প্রায় একবছর ধরে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে তারা বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত ও যৌন হয়রানিসহ কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। ছাত্রীটির পরিবার থেকে এ ব্যাপারে বার বার বারণ করার পরও অভিযুক্ত শিক্ষকরা নিবৃত্ত হননি। বৃহস্পতিবার সকালে ওই নির্যাতিত ছাত্রী নিজেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে অভিযোগ করে। এ প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান খান অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান খান মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠকে জানান, নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে অভিযুক্ত দুই শিক্ষক নিয়মিত উত্যক্ত ছাড়াও নানা প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে প্রতিনিয়ত কুপ্রস্তাব দিতেন। অভিযোগ পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের পাশের সড়কে দাঁড়িয়ে থাকি। এ সময় স্কুল থেকে ফেরার পথে ওই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির সময় হাতেনাতে আটক করি। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/১৩-অক্টোবর২০১৭ইং/নোমান

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ