ট্রেনের দালালের দৌরাত্ম্য

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
নভেম্বর ২, ২০১৭ ৯:৪৯ অপরাহ্ণ

খইর আহমেদ ।। আজ ভোর ৫:৩০ কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে সিলেট আসার জন্য টিকেট কাউন্টারে টিকেট চাইছি , কাউন্টারে কর্তব্যরত লোক বলল সিট নেই স্টেন্ডিং টিকেট করে যেতে হবে। আমি টিকেট না করে অন্য পাশে গেছি হঠাৎ একটা দালাল বলল পারাবতের টিকেট লাগবে ? আমি বললাম চেয়ারকোর্স হবে ?
সে বলল ৫০০ টাকা লাগবে। কথাবার্তা বলে তার কাছে টাকা দিলাম। সে অন্য কাউন্টারে গিয়ে যথারীতি টিকেট দিল।
ফিরে গেলাম প্রথম কাউন্টারের লোকের কাছে , বললাম আপনি বললেন সিট নেই তাহলে দালালকে টাকা দেওয়ায় টিকেট কোথা থেকে আসলো? সে বলল যে দিছে তাকে জিজ্ঞেস করেন!
আমি বললাম টিকেটিং সিস্টেমটা তো অনলাইন সিস্টেম সে পাইলে আপনি পান নাই কেন?
সে বলে ওরে জিজ্ঞেস করেন?
বললাম তুমি যে দেশের শত্রু তুমি জান?
তোমাদের দালালদের জন্য রেলওয়ে প্রতি বৎসর লস দিচ্ছে! এরকম কথা কাটাকাটির মধ্যে একটা দালাল আমার দিকে ক্ষেপে আসে বলতেছে এই বেটা সিট নাই দেখেতো স্টেন্ডিং টিকেট দিছে!!!
আমি অবাক হয়ে বললাম কে আপনি?
সে (দালাল) বলল আমি যাত্রী।
আমি বললাম তুমি যাত্রী হলে আমার সাথে কথা বলতেছ কেন? তুমার কথা বলার রাইট নাই তুমারে কথা বলার সুযোগ দিছে কে?
তখন আমার পাশে থাকা মানুষগুলো ওই দালালের উপর ক্ষেপে যায় এবং দালালটি না পেরে চলে যায়।

তারপর প্লাটফর্মের দিকে গেলাম, দেখলাম দুজন পুলিশ সদস্য দাড়িয়ে আছে তাদেরকে বিস্তারিত ঘটনা বলার পর বেশ আন্তরিকতার সাথে কিছু পরামর্শ দিল। বলল তাদের সিমাবদ্ধতা, তাই ওসি সাহেবের সাথে কথা বলে ডায়রি করতে !
যথারীতি থানায় গেলাম গিয়ে দেখি কেউ নেই , কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর একজন এস আই এর সাথে দেখা হলো তাকে পুনঃরায় বিষয়টি বললাম। সে আমাকে বলল ওসি স্যার নাই আর উনার অনুমতি ছাড়া ডায়রি করতে পারবো না। দালালকে চিনে রাখলাম ওকে ধরবো বলে আষঢ়ের গল্প শুনিয়ে দিল আমাকে বুঝতে দেরি হলোনা যে সেও দালাল সিন্ডিকেটের একজন!
তারপর একজন রেলের কর্মকর্তা আমাকে বললেন টিকেট করেছেন ?
আমি বললাম এই বিড়ম্বনার মাঝে আপনি কি দুর্গতি করতেছেন। উনি হেসে বললেন এখানে স্টেশন মাস্টার থেকে পুলিশ, দালাল সিন্ডিকেটের সদস্য! আর আমাকে সাধুবাদ জানালেন!!!

শেষ পর্যন্ত ট্রেনে উঠলাম ট্রেন ছাড়ার পর দেখি বগিতে প্রায় অর্ধেক সিট খালি!!! আর ঐদিকে মানুষ সিট পায় না। এদিকে সিট না পেয়ে টিকেট বিহীন যাত্রীরা হচ্ছেন টিটিদের উৎকোচের ভান্ডার!  লস স্বীকার করতে হচ্ছে সরকার এবং দেশকে ভুক্তভোগী হচ্ছেন সাধারণ মানুষ!!!!

সংশ্লিস্ট মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করছি!!!

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া