ভুল করে নিউ ইয়র্ক টাইমসের অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছিল টুইটার

তথ্য প্রযুক্তি রিপোর্ট : ২৪ ঘণ্টার জন্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের একটি অ্যাকাউন্ট ব্লক করার সিদ্ধান্তটি ভুল করে হয়েছিল বলে জানিয়েছে টুইটার। বিদ্বেষ ছড়ানোর জন্য ওই অ্যাকাউন্টটি ব্লক করা হয়েছিল বলে টুইটার জানিয়েছিল। তবে পরে মাইক্রোব্লগিংয়ের জনপ্রিয় সাইটটি জানিয়েছে, ভুল করে ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, নিউ ইয়র্ক টাইমসের অ্যাকাউন্টটি ব্লক করায় ‘সাময়িক অসুবিধার’ কারণে দুঃখপ্রকাশও করেছে টুইটার। নিউ ইয়র্ক টাইমসের ওই অ্যাকাউন্টটির ঠিকানা @nytimesworld। মার্কিন জনপ্রিয় গণমাধ্যমটির এই টুইটার অ্যাকাউন্টটি ভেরিফায়েড। এর অনুসারী ১৯ লাখ।

এই অ্যাকাউন্ট থেকেই কানাডায় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন পোস্ট করা হয়। ‘বিদ্বেষমূলক’ হওয়ায় ওই পোস্টটি টুইটারের নিয়ম লঙ্ঘন করে বলে জানায় টুইটার। এর জের ধরেই ২৪ ঘণ্টার জন্য ব্লক করে রাখা হয় অ্যাকাউন্টটি।

জানা গেছে, নিউ ইয়র্ক টাইমসে শেয়ার করা ওই পোস্টে বলা হয়েছে, ‘এক দশক আগে ভুল স্বীকারের মাধ্যমে, নিউফাউন্ডল্যান্ড ও ল্যাব্রাডারের বাসিন্দারা জাস্টিন ট্রুডোর কাছ থেকে ক্ষমা পেয়েছে।’ রাজনীতিবিদদের উল্লেখ করে এতে বলা হয়েছে, এর আগে আদিবাসী শিশুদের বোর্ড স্কুলে ভর্তির জন্য বল প্রয়োগ করা হয়েছে এবং কিছু শিক্ষার্থীকে নির্যাতন করা হয়েছে।

টুইটার জানায়, ‘অ্যাকাউন্টটি পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, আমাদের এক এজেন্ট ভুল করেছিল। আমরা বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি যেন এ ধরনের ভুল বারবার না ঘটে।’

টুইটারের এমন ভুল অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগে টুইটারের এক কর্মী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট নিষ্ক্রিয় করে দিয়েছিলেন। যদিও ১১ মিনিটের মাথাতেই সেটা আবার চালু করা হয়। এর আগে, বিদ্বেষমূলক ও আপত্তিকর বিষয়বস্তুকে ধারণ করে— এমন পোস্টগুলোকে সরিয়ে নিতে দীর্ঘ সময় নেওয়ার কারণে সমালোচনার মুখে পড়েছে টুইটার।

 

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ