বগুড়ায় পরিত্যক্ত বাড়িতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার মহাস্থানের পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে ৩ সন্তানের জননীর জবাইকৃত গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে শিবগঞ্জ উপজেলার মহাস্থানের পাথরপট্রি নামকস্থানের (আরকিওলিজির) অর্থাৎ প্রতœতত্ত বিভাগের পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে মমতাজ
বেগম (৩০) নামের ৩ সন্তানের জননীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় বিষয়টি নিশ্চিত করে শিবগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) জাহিদ হাসান জানান, হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে বুধবার রাত ১২টায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তবে কি কারনে কে-বা কারা ৩ সন্তানের জননী এই গৃহবধুকে হত্যা করেছেন,

এ বিষয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা সুস্পষ্ট কিছু বলতে পারেননি।

তবে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২ ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধু পাথরপট্রি এলাকার আলতাব আলীর ছেলে জামালের স্ত্রী বলে জানা গেছে। জামাল মাদক সংক্রান্ত মামলায় কারাগারে রয়েছেন। তাদের সংসারে জাকিয়া আক্তার (১৪), জাকিরুল ইসলাম (৯) এবং জাহিদ হাসান (৫) নামের শিশু সন্তান রয়েছে। নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় নিহত গৃহবধূ মমতাজ বেগমকে মহাস্থান ঈদগাঁহ মাঠ থেকে অজ্ঞাত এক যুবক ডেকে নিয়ে পাথরপট্রির পরিত্যক্ত বাড়ির দিকে যায়। এরপর দীর্ঘক্ষণ সে না ফেরায় পরিবারের সদস্যরা তাকে সম্ভাব্য স্থানে খুঁজতে থাকে।

একপর্যায়ে পাথরপট্রির বাটগাছের নিচে পরিত্যক্ত বাড়ির একটি কক্ষের মেঝেতে গৃহবধুর রক্তাক্ত জবাইকৃত লাশ দেখে চিৎকার দেয়। পরে স্থানীয়রা ছুটে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। স্থানীয়রা শিবগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরহেদ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

Comments are closed.