চিরিরবন্দরে ইঁদুরের গর্ত থেকে ধান বাহির করা নিয়ে ব্যস্ত শিশুরা

এস.এম নুর আলম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ চিরিরবন্দর উপজেলা রোপা আমন ধান কাটা মাড়াই নিয়ে ব্যস্ত কৃষকরা। ধান কাটা-মাড়াই ঘিরে যখন চিরিরবন্দর এলাকার কৃষক পরিবারে চলছে উৎসবের আমেজ। তখন কিছু ভূমিহীন অভাবি পরিবারগুলোর একবেলা খাবার জোটে না। অভাবের তাড়নায় তারা স্কুলে যাইতে পারে না। এই বয়সে অভাব কি তারা ঠিকমত বুঝে উঠতে পারে না। এসব পরিবারের শিশুরা খুঁজে বেড়াচ্ছে কৃষকের কেটে নেওয়া ধান ক্ষেতে ইঁদুরের গর্ত। ইঁদুরের গর্ত থেকে সংগ্রহ করা ধান একবেলা খাবারে জন্য অন্তত একদিন পিঠা খাওয়ার স্বপ্ন দেখে। শিশুরা ধান কাটার মৌসুমে স্কুলে না গিয়ে ফসলে জমিতে ইঁদুরের গর্তের ধান সংগ্রেহ ব্যস্ত শিশুরা। বর্তমানে চিরিরবন্দর উপজেলা রোপা আমন ধান কাটা-মাড়াই নিয়ে ব্যস্ত কৃষকরা। স্বপ্নের ধান ঘরে তুলতে কৃষকেরা যেমন ব্যস্ত, ঠিক অভাবি পরিবারের শিশুরা মাঠে ঘাটে ইঁদুরের কেটে নিয়ে যাওয়া ধান তারা গর্ত থেকে বের করা নিয়ে ব্যস্ত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কৃষকরা যখন জমি থেকে ঘাড়ে করে ধান নিয়ে যায় শিশুরা দৌড়ে গিয়ে ধান কুড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকে। কৃষকের ক্ষেত থেকে ইঁদুরে ধানের শীষ কেটে নিয়ে খাদ্য হিসাবে গর্তে মজুদ রাখে। আর এসব শিশুরা সেই গর্তে খুঁড়ে ইঁদুরের খাদ্য বের করে তখন তাদের চোখে মুখে সোনালী হাসি ফুটে উঠে। রোপা আমন ধানের সঙ্গে কৃষকরা যেমন ব্যস্ত তার সাথে সাথে অভাবি পরিবারের লোকজনও ব্যস্ত। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, তাদের হাতে শাবল, খুন্তি, কোদাল, ঘাড়ের বস্তা নিয়ে ক্ষেতে ছুটে বেড়াচ্ছে শিশুদের দল।

সরেজমিনে আসিবের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, হারা আইজকা মেলা ধান পাইছি, ত্র্যাইলা ধান হ্যামরা দিয়্যা পিঠা খ্যামো।

Comments are closed.