জাতীয় দল থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছিলেন সাকিব!

স্পোর্টস রিপোর্ট : বাংলাদেশ ক্রিকেটে আলোচিত নাম সাকিব আল হাসান। কারণ তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠা করে ফেলেছেন বিশ্বের ১ নাম্বার অল-রাউন্ডার হিসেবে। ভালো-মন্দ মিলিয়েই চলতি বছরটা কেটেছে বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। উদ্ভট শট খেলে আউট যেমন হয়েছেন, তেমনি খেলেছেন রেকর্ড ভাঙা সব ইনিংস।

কিন্তু সবচেয়ে আশ্চর্যজনক তথ্য হল, এই সাকিবকে নাকি একটা সময় দল থেকে বাদ দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছিল! কিন্তু ব্যাটের দ্বারাই তার জবাব দিয়েছেন।

ক্রিকেট বিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর ‘চূড়া থেকে খাদে’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদনের অংশে জুড়ে উল্লেখ করা হয়েছে সাকিবের এই ঘটনাটি। ওয়ানডেতে টানা ব্যর্থতার পর চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে টিম ম্যানেজম্যান্ট নাকি সাকিবকে দল থেকে বাদ দেওয়ার হুমকিতে রেখেছিল!

নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ফরম্যাটে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা নিয়ে বছর শুরু করে বাংলাদেশ। এরপর শ্রীলঙ্কা সফরে তিন ফরম্যাটেই ড্র করে ছন্দে ফিরে টাইগাররা।
এরপর ত্রিদেশীয় সিরিজে ডাবলিনে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথমবারের মত ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ের ৬ নম্বরে ওঠে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। সেখান থেকে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। ৮ দলের এই আসরে শুরুটা বাজে হলেও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিতে ওঠে টাইগাররা। তাহলে এখানে বাদ দেওয়ার প্রশ্ন আসল কোত্থেকে?

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির মঞ্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কার্ডিফের সেই ঐতিহাসিক জয়ের আগে খুব বাজে ফর্মে ছিলেন সাকিব। ৯ জুনের সেই ম্যাচের আগে শেষ ১০টি ইনিংসে তার রান ছিল যথাক্রমে ৫৯, ৭, ১৮, ৭২, ৫৪, ১৪, ৬, ১৯, ১০ এবং ২৯। এমন পারফর্মেন্সের কারণে নির্বাচক কমিটি নাকি সাকিবকে লাইফলাইন বেঁধে দিয়েছিল। কিন্তু সেই চ্যাম্পিয়নস ট্রফির মঞ্চেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১১৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেললেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার। আরেক সেঞ্চুরিয়ান মাহমুদ উল্লাহর (১০২*) সঙ্গে ম্যাচ জেতানো ২২৪ রানের জুটি উপহার দিলেন।

ওই ম্যাচে হারের মুখ থেকে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান সাকিব-মাহমুদ উল্লাহ। একইসঙ্গে আরও একবার চ্যালেঞ্জ জিতে নিজেকে প্রমাণ করেন সাকিব আল হাসান।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ