এবার বছরের শুরুতে একসাথে ৪ কোটি বই শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দিবে সরকার : আফজাল হোসেন ,এম.পি

মুহাম্মদ কাইসার হামিদ, ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি ।। এবার বছরের শুরুতে একসাথে ৪০ কোটি বই শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দিবে সরকার । কিশোরগঞ্জ ৫ (বাজিতপুর-নিকলী) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আফজাল হোসেন এম.পি গত ৩০ ডিসেম্বর শনিবার কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর উপজেলার বাজিতপুর হাফেজ আঃ রাজ্জাক পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রদের পূণর্মিলনী- ২০১৭ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সরকারের ব্যাপক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে এ কথা বলেন। এ সরকার ছাত্রীদের শত ভাগ উপবৃত্তি দিচ্ছে। তাই সকলের প্রতি লেখা পড়ার মান বৃদ্ধির লক্ষে কাজ করার আহবান জানিয়ে তিনি আরও বলেন মানুষের মাঝে দেশ প্রেম থাকতে হবে। অতীতকে মনে রাখতে হবে।

এ সময় বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও পূণর্মিলনী প্রস্তুতি কমিটি – ২০১৭ এর আহব্বায়ক মোঃ মোবারক হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বত্তব্য রাখেন, সাবেক সচিব আবদুল ওয়াহাব,শাবিপ্রবি সাবেক উপার্র্চায ডঃ মোঃ আমিনুল হক ভূইয়া, কিশোরগঞ্জ – ৫ আসনের সাবেক এম.পি মঞ্জুর আহম্মেদ, বাজিতপুর পৌরসভার সাবেক পৌর সভার চেয়ারম্যান মিজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ, বাজিতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ছারওয়ার আলম, বাজিতপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ আনোয়ার হোসেন, বাজিতপুর হাফেজ আঃ রাজ্জাক পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রাধান শিক্ষক মোঃ মফিজুল ইসলাম আফ্রাদ, ঢাকা স্টক এবিএ সভাপতি মোস্তাক আহম্মেদ সাদেক, বাজিতপুর হাফেজ আঃ রাজ্জাক পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শরিফুল ইসলাম।

অন্যান্যদের মধ্যে বত্তব্য রাখেন, মেজর জেনারেল জিয়া উদ্দিন আহম্মেদ (অবঃ), বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র আলহাজ্ব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, বাজিতপুর ডিগ্রী কলেজের অবসর প্রাপ্ত অধ্যাপক ইন্দ্রজিত দাস, বিদ্যালয়ের প্রাত্তন ছাত্র এনজিও কর্মকর্তা মোঃ মুতিউর রহমান, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি হাজী মিজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ, বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মোঃ জিল্লুর রহমান ও এ্যাড. গাজী এনায়েতুর রহমান প্রমূখ।

এসময় বিদ্যালয়ের ৮শত প্রাক্তন ছাত্র, বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ ও বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্যবৃন্দ সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্টানের শুরুতে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব মোঃ আফজাল হোসেন এমপি, বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্টানের সূচনা করেন। অনুষ্টানে বিদ্যালয়ের ছাত্ররা অতিথিবৃন্দকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়। পরে অতিথিবৃন্দ ও প্রাক্তন ছাত্রদের ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তারা প্রাক্তন ছাত্রদের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা প্রধান অতিথিকে উদ্দেশ্য করে বিদ্যালয়ের সমস্যা কথা তুলে ধরে তাদের বক্তব্যে বলেন, এ বিদ্যালয়ে ২ হাজার ২৭ জন ছাত্র লেখাপড়া করছে। এ বিদ্যালয়ে শ্রেণীকক্ষের সংকট বিদ্যালয়ে শেণীকক্ষে সংকট,ব্যান্সের সংকট, বিদ্যালয়ে ভবন জড়াজীর্ণ। একটি অডিটরিয়ামের অভাব। তাই এ সমস্যা সমাধানের দাবী জানিয়ে ১২৭ বছরের বহু পুরাতুন ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টি সরকারি করণের দাবী জানান। প্রধান অতিথি আলহাজ্ব মোঃ আফজাল হোসেন ৩ মাসের মধ্যে কিছু দাবী পুরনের আশ্বাস দেন।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ