কটিয়াদী সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের অভাবনীয় সাফল্য! জিপিএ- ৫ সংখ্যা-৬৪, পাশের হার-৯০%

মোঃ ছিদ্দিক মিয়া, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।। ৩০শে ডিসেম্বর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়।কটিয়াদী উপজেলায় ২৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ২১টি দাখিল মাদ্রাসা আর রয়েছে কিন্ডার গার্টেন,এনজিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।এরই মধ্যে অসাধারন সাফল্য অর্জন করে কটিয়াদী পাইলট সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।এ বছর ২০১৭ সালে জেএসসি পরীক্ষায় ৪১০জন অংশগ্রহন করে জিপিএ -৫ পেয়েছে ৬৪ জন এবং পাশ করে-৯০% ছাত্রছাত্রী।এই ফলাফলের জন্য অভিভাবকগণ খুবই সন্তুষ্ট ও খুশি।কয়েকজন অভিভাবক সন্তুষ্ট হয়ে বলেন, আমরা আমাদের ছেলে মেয়েদের ভাল ফলাফল চাই।আর উপজেলার মধ্যে একমাত্র কটিয়াদী সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রতি বছরই এ রকম সাফল্য করে আসছেন এবং যেমন এ বছরও অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে।এজন্য অত্র স্কুলের সভাপতি,ম্যানেজিং কমিটি,প্রধান শিক্ষক,সহকারী শিক্ষক/ শিক্ষিকাবৃন্দকে অভিনন্দন জানাই।

কটিয়াদী সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদিউল আলম মাহফুজ বলেন, আমি ও আমার সহকারী শিক্ষকগনের কঠোর পরিশ্রমের ফলে আজকে এই ফলাফল অর্জন।আমি প্রধান শিক্ষক হওয়ার পূর্বে জিপিএ- ৫ সংখ্যা খুবই কম ছিল।আমাদের এই ফলাফলের জন্য আমি সবচেয়ে ঋনি অত্র স্কুলের সভাপতি ও কিশোরগঞ্জ-২(কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া)আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সোহরাব উদ্দিন এমপি মহোদ্বয়ের নিকট যে তিনি সর্বদায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার মানসহ ও অবকাঠামো উন্নয়নের লক্ষে সর্বদায় আমাদেরকে সহযোগিতা করেন।উনার প্রচেষ্টায় এবং মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর সদ্বেচ্চায় আমাদের বিদ্যালয়টি ইতিমধ্যে জাতীয় করন হয়েছে।আগামীতে আমি আমার বিদ্যালয়ের ফলাফল বিভাগীয় পর্যায়ে শীর্ষ পর্যায়ে একটি বিদ্যালয় হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। এছাড়া শিক্ষাবান্ধব বারবার নির্বাচিত অভিভাবক সদস্য শফিকুর রহমান মোঘলও বিদ্যালয় পরিচালনা সর্বদায় সহযোগিতা করেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য শফিকুর রহমান মোঘল বলেন, অত্র স্কুলের সভাপতি ও কিশোরগঞ্জ-২(কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া)আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সোহরাব উদ্দিন এমপি সাহেবের নেতৃত্বে ও কটিয়াদী সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদিউল আলম মাহফুজের অক্লান্ত পরিশ্রম,মেধায় এবং সহকারী শিক্ষকগনের সহযোগিতা এই কৃতৃত্ব অর্জন। এটা শুধু এবার নয় আমরা প্রতিবছর এ রকম ফলাফল অর্জন করি।আগামীতে আরও যাতে শতাধিক জিপিএ-৫ পাওয়ার লক্ষে আমরা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ