সর্বশেষ সংশোধিত তালিকা অনুযায়ী, ১৮০৫১৩ জন বেসামরিক মুক্তিযোদ্ধা

জাতীয় ।। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানিয়েছেন, সর্বশেষ সংশোধিত তালিকা অনুযায়ী, বেসামরিক মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ১ লাখ ৮০ হাজার ৫১৩ জন।

মঙ্গলবার সংসদে সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে সকল উপজেলার গেজেটভুক্ত বেসামরিক মুক্তিযোদ্ধার তালিকা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠার আগে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিস্বাক্ষরিত সনদ ইস্যু করা হয়েছিল। ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিস্বাক্ষরিত সনদ ইস্যু করে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

সংসদ সদস্য গোলাম রাব্বানীর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আগামী ৩০ দিনের মধ্যেই মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল তালিকা প্রকাশ করা হবে। মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল তালিকা তৈরির কাজ ৮০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বাকি কাজ সম্পন্ন হবে।

সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মিলনের এক প্রশ্নের জবাবে মোজাম্মেল হক বলেন, ৪৭০টি উপজেলা, জেলা, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির মধ্যে ৩৬০টি কমিটির প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। অপর ১১০টি কমিটির প্রতিবেদন মামলা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে পাওয়া যায়নি। তবে প্রতিবেদনগুলো পাওয়ার বিষয়ে নতুন কমিটি গঠনসহ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নতুন মুক্তিযোদ্ধাদের নাম গেজেটভুক্ত হওয়ার পর তাদের নামে সম্মানী ভাতা প্রদানের কার্যক্রম শুরু করা হবে। ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে, এমন ব্যক্তিদের আপিল করার সুযোগ আছে এবং তাদের আপাতত ভাতা চালু রাখা হয়েছে। তবে আপিল কমিটির যাচাই-বাছাইয়ে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা প্রমাণিত হলে, তাদের ভাতা বন্ধ করা হবে এবং ইতোমধ্যে তাদের গ্রহণকৃত ভাতা ফেরত নেওয়া হবে।

Comments

comments

You might also like More from author

Comments are closed.

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ