৭১ এর শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্নার আকুতি!

সম্পাদকীয় ।। আমি একজন জীবিত মুক্তিযোদ্ধা। শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্নার আকুতি প্রকাশ করার জন্য তাদের আত্না রাতে ঘুমের মধ্যে আমাকে তাড়া করে। যেহেতু আমি লেখালেখি করি। আমার শহীদ সহযোদ্ধা সিদ্দিক, খালেক ও আবুতালেব সহ ১৯ জন প্রতিরাতে আমাকে বলে যে, রাজনীতিবিদরা ক্ষমতা নিয়ে রসি টানাটানি করাতে আমরা মৃত মুক্তিযোদ্ধাদের কেউ স্মরণ করার সময় পায় না। যদিও বিগত ১৪ বছর স্বাধীনতার সপক্ষের সরকার ক্ষমতায় থাকায় ২৬শে মার্চ ও ১৬ই ডিসেম্বর জীবিত ও আমরা শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণ করা হয়। এতে আমরা তৃপ্তি পাই না। কারন আমরা শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের অধিকাংশই মুসলমান। প্রতি রমজান মাসে আল্লাহর নির্দেশক্রমে আমাদের আত্নাকে ছুটি দেয়া হয়। তখন আমরা আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক কথা বলা, জীবিত আত্নীয়স্বজন ও দেশের কথা চিন্তা করার সূযোগ পাই। আজ দেশ স্বাধীন হলো প্রায় ৪৭ বছর। এর মধ্যে মাত্র ১৮ বছর স্বাধীনতার সপক্ষের সরকার দেশ শাসন করেছে। তাতে আমাদের কিছুটা স্মরন করা শুরু হয়েছে। তার মধ্যে আবার কিছু অমুক্তিযোদ্ধা রাজনৈতিক বিবেচনায় ঢুকে আমাদের প্রাপ্য হতে ভাগ নিতে শুরু করায় আমাদের জীবিত আত্নীয়স্বজন আসল সুবিধা হতে বঞ্চিত হইতেছে। তাছাড়া আমরা যারা অবিবাহিত অবস্থায় মারা যাই তাদের বৃদ্ধ পিতামাতাও ইহকাল ত্যাগ করে আমাদের কাতারে। কিন্তু তখন আমাদের অনেকের বাপ-মা না থাকায় ভাই বোনদের হাতে মানুষ হয়ে তাদের নির্দেশে ও বঙ্গবন্ধুর আহবানে স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করি। আমাদের বৃদ্ধ ভাইবোন প্রাপ্য সুযোগ সুবিধা হইতে বঞ্চিত। তাদের মনের ভাবটা আমরা বুঝি। কিন্তু সরকারি নিয়ম না থাকায় তারা আজ বঞ্চিত।

শহীদদের এই আকুতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সকল বাঙ্গালীর প্রতি আকুল আবেদন।

 

লেখক :

বীর মুক্তিযোদ্ধা নিছার আহমদ (রতন)
উপ-অধিনায়ক, ডি কম্পানী, ৫ নং সাব সেক্টর সুনামগঞ্জ।
সম্পাদক ও প্রকাশক, মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ডটকম।

Comments are closed.