কিশোরগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ : আহত ১০, আটক ৭

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৮ ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ ।। কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে তিন পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিলেট যাওয়ার পথে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে স্বাগত জানাতে আসলে বিএনপি নেতা-কর্মীদের সাথে পুলিশের কয়েকদফা সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ১৭ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়ে, ৭ নেতা-কর্মীকে আটক করে। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর ভৈরব অতিক্রম করলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

স্হানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার সফরকে কেন্দ্র করে গতকাল রোববার থেকেই বেশ তৎপর ছিল পুলিশ। এর ধারাবাহিকতায় রোববার বিকাল থেকে রাতভর ভৈরব ও কুলিয়ারচরের বিএনপি ও সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশী চালানো হয়। তল্লাশীকালে পুলিশ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করে।

এদিকে আজ সকাল থেকে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-ভৈরব-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভৈরব বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সকল যানবাহন চলাচলসহ দোকান-পাট বন্ধ করে দেয় পুলিশ। এতে পুরো এলাকায় হরতাল-অবরোধের আবহ তৈরি হয়। শহরের বিভিন্ন প্রবেশমুখে বিপুল পরিমাণ পুলিশ থাকেন টহলরত। পুলিশের এতো নজরদারির মধ্যেও সকাল ১০টার পর থেকে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে নেতা-কর্মীরা অবস্থান নেওয়ার চেষ্টা করে। এতে পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এ সময় ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাজাহারুল ইসলাম, ভৈরব উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, জেলা বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট বদরুল মোমেন মিঠু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক ভিপি বাহার উল ইসলাম বাহার, জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক তারিকুজ্জামান পার্নেলসহ বেশ কয়েকজনকে আটক করে। পরে তাদেরকে পুলিশের কর্তব্য কাজে বাঁধা সৃষ্টির অভিযোগে মামলা দায়েরের পর কিশোরগঞ্জ জেল-হাজতে পাঠানো হয়।

এদিকে নেতা-কর্মীদের আটকের প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে আজ দুপুর দুইটার দিকে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ভৈরব উপজেলা বিএনপি। মিছিলটি শহরের মনামরা ব্রীজ এলাকা থেকে বের হয়ে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সমূহ প্রদক্ষিণ করে। ওই বিক্ষোভ মিছিলে বিএনপিসহ ছাত্রদল, যুবদল এবং অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

Comments are closed.