অভিবাদন মহামান্য : জীবন তাপস তন্ময়

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৮ ৭:১২ অপরাহ্ণ

মুক্তকলাম ।। শান্তি ও গণতন্ত্র সুরক্ষায় আপনার সংগ্রাম আমাদের দীপিত-উদ্দীপিত-প্রাণিত-শাণিত-সম্মানিত করে। দিনমুজুর, খেটে খাওয়া প্রান্তিক মানুষ ও ব্রাত্যজনেরাও আজ খুশি। ধর্ম-বর্ণ-জাত-পাত উঁচু-নীচু ভেদাভেদহীন মঞ্চায়নে ছিলেন। মাটি ও মানুষের মানচিত্র রচনায় ছিলেন। পথ পরিক্রমায় বাঁক বদলিয়েছে জীবন, মানুষের জয়গান কণ্ঠে ছিল অহর্নিশ। যা কিছু আরোপিত, যা কিছু কপট, যা কিছু কৃত্রিম, যা কিছু অন্যায়-অসত্য_ দলে গেছেন পদ-পদক্ষেপে। ছিলেন অকুতোভয়। জীবনের বহুমাত্রিক উত্থানশক্তি আপনাকে দিয়ে অপার মহিমা। আপনি জানেন, একা-একা একক হওয়া যায় না। মানুষের পাশে ছিলেন। মানুষের সাথে ছিলেন। মানুষকে সাথে নিয়েছেন। মানুষের অধিকার আদায়ে বুকটান টান-টান করে দাঁড়িয়েছেন। কোন অশুভের কাছে মাথা নত করেননি। আপনাকে যারা ঈর্ষা করেছে, হিংসা করেছে, তারা পথচ্যুত হয়ে গেছে। ধ্বংস হয়ে গেছে। আপনি কারও অমঙ্গল চাননি। ক্ষতি করেননি। নিজেরাই নিজেদের জন্য ক্ষতিকারক হয়েছে। স্বপ্ন ও সম্ভাবনায় আপনি ঘুরে দাঁড়িয়েছেন একাই। কেউ আপনাকে হাত ধরে এগিয়ে দেয়নি। কারও দয়ায় আপনি এই আকাশ-ছোঁয়া সম্মান পাননি। কারও দানে আপনার এই অর্জন নয়। আপনার বিকল্প কেউ ছিল না, তাই আপনি এখানে উঠে এলেন। এই উঁচুতে। আপনাতেই স্বমহিমায় ভাস্বর আপনি। কারও মহিমায় না। আজন্ম পথ হেঁটেছেন স্বতন্ত্র বীভায়। স্বকীয় আলোর চাষাবাদ করেছেন। স্বপ্ন দেখেন, স্বপ্ন দেখান ও স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন। রাতারাতি খ্যাতিজ্যোতি অর্জিত হয়নি, ধারাবাহিক সংগ্রাম- সাধনায় নির্মিত ও বিন্যস্ত এই অপরাজেয়তা। এই সাফল্য। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ ছিল আপনার কাছে মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। কখনওই আলাদা ছিল না। বঙ্গবন্ধুকে ভালোবেসে আপনি বাংলাদেশকে আপন করে নিয়েছেন। আত্মার করে নিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িকতা, প্রগতিশীলতা, মুক্তচিন্তা, ধর্মনিরপেক্ষতা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, যুক্তিবাদীতা, বিজ্ঞান মনস্কতা, সাম্যবোধ ও শেকড়লগ্নতা আপনার সহজাত চরিতাভিধান…

শুভকামনা হে কিংবদন্তী, আপনি ভালো থাকুন, ভালো থাকবে বাংলাদেশ!

 

লেখক : সাহিত্যিক, সাংবাদিক, কলামিস্ট।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া