কিশোরগঞ্জে শনিবার শুরু হচ্ছে সাত দিনব্যাপী বৃহত্তর বইমেলা

আমিনুল হক সাদী, নিজস্ব প্রতিবেদক ।। ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য একুশের বই মেলার পর জেলা পর্যায়ে এবারও কিশোরগঞ্জে শুরু হচ্ছে সাত দিনব্যাপী বৃহত্তর বইমেলা।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ১৭ ফেব্রুয়ারি হতে কিশোরগঞ্জ পুরাতন স্টেডিয়ামে শুরু হবে বইমেলা। এই বই মেলাটি চলবে ২৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

শুক্রবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) উপসচিব তরফদার মোঃ আক্তার জামীল মেলার সার্বিক তদারকি করছেন এবং নিজেই স্টলের নাম্বারিং করছেন। স্টল নির্মাণ ও মাঠ সজ্জার কাজও পুরোদমে বাস্তবায়িত হচ্ছে। তিনি জানান, এ বছর ১৭৪ টি স্টল নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে কিছু কম বেশিও হতে পারে।

জেলা প্রশাসন মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে বিস্তারিত কর্মসুচী নিয়েছে।

কর্মসুচীতে অন্তভূক্ত রয়েছে ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকেলে পুরাতন স্টেডিয়ামে বইমেলার উদ্বোধন শেষে শুরু হবে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

১৮-২০ ফেব্রুয়ারি থাকছে কবিতা ও ছড়া পাঠের আসর,কুইজ প্রতিযোগিতা পুঁথি পাঠ, আলোচনাসভা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

২১ ফেব্রুয়ারি রাত ০০.০১ মিনিটে গুরুদয়াল সরকারী কলেজ মাঠে অবস্থিত শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হবে। সুর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও অন্যন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এবং সরকারি আধা সরকারি ও স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানসমূহের ভবনে ও বেসরকারি ভবন সমূহে সঠিক নিয়মে সঠিক মাপের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে। সকাল ১০ ঘটিকায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক কার্যালয়ে রচনা, আবৃত্তি,সুন্দর হাতের লিখা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠিত হবে। বাদ যোহর ও সুবিধাজনক সময়ে চলচ্চিত্র প্রদর্শন, সকল মসজিদ ও মন্দিরে গীর্জায় এবং অন্যন্য উপাসনালয়ে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হবে। বিকেলে আলোচনাসভা ও ভাষা সৈনিকদেরকে সম্মাননা ও পুরস্কার প্রদান করা হবে।

২২ ফেব্রুয়ারি দিনব্যাপী উপস্থিত বক্তৃতা,কবিতা ও ছড়া পাঠের আসর,কুইজ প্রতিযোগিতা এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে সমাপ্তী হবে সাতদিনব্যাপী মেলার।

Comments are closed.