ইটনায় রিক্রুটিং পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ওসির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

ইটনা (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সদ্য নিয়োগ পরীক্ষায় ইটনা উপজেলার রিক্রুটিং ১৫ জন পুলিশ সদস্য কে নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ইটনা থানা ভবনে ব্যতিক্রমী আয়োজন করেন।

শুরুতে সকল সদস্য দের ফুল ও মিষ্টি দিয়ে বরণ করে নেন। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউর রহমান খানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, তিনি তার বক্তব্যের শুরুতে মহামাণ্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের দীর্ঘায়ু কামনা করে বলেন তিনি হাওড় এলাকার সন্তান হিসেবে দলমত নির্বিশেষে সকল সরকারী নিয়োগে এলাকার সৎ যোগ্য মেধাবীদের শিক্ষার্থীদের চাকুরীর জন্য প্রত্যাশা করেন।

ইটনা থানার অফিসার ইনচার্জ  আব্দুল মালেক রানা সকল সদস্য দের উদ্দেশ্য বলেন, আমাদের সাবেক এসপি আনোয়ার হোসেন স্যার বলেছিলেন  কিশোরগঞ্জ জেলায় পুলিশ নিয়োগে কোন ধরনের দূর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। তিনি তার আরও বলেছিলেন মাত্র ১০০ শত টাকায় জেলায় পুলিশে চাকরী হবে তার সে বক্তব্য আপনারা বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, ফেইস বুকে ইতিমধ্যে দেখেছেন। তিনি আরও বলেছিলেন মহামাণ্য রাষ্ট্রপতির নির্দেশ ছিল সৎ যোগ্য ও মেধাবীদের পুলিশ বাহিনীতে রিক্রুটিং করতে। সে হিসেবে ইটনা থানার একজন মহিলা সহ ১৫ জন নিয়োগ পেয়েছেন। রিক্রুটিং হওয়ার পর যথাসময়ে আমার থানার অফিসার বৃন্দ দায়িত্বের সাথে সুন্দর ও সুষ্টভাবে অতিদ্রুত আপনাদের পুলিশ ব্যারিফিকেশন পজিটিভ পেয়ে কতৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করেছে। আমি আপনাদের পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করায় সকলের উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করছি। রিক্রুটিং পুলিশ মহিলা সদস্যা তার বক্তব্য বলেন আমি একজন সাধারণ কৃষকের মেয়ে আমার পুলিশে নিয়োগে ১টি টাকাও লাগে নাই। এ জন্য আমিসহ উপজেলার ১৫ জন সদস্যের পক্ষ থেকে আমাদের সংসদ সদস্য জনাব রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক ভাই সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কে ধন্যবাদ জানাই।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা কামরুল ইসলাম মমিন, এসআই রুকন উদ্দিন, এসআই মোঃ রফিকুল ইসলাম, এএসআই মোঃ মানিক মিয়া, এএসআই আমজাদ হোসেন, বাদলা তদন্ত কেন্দ্রের এসআই রফিকুল ইসলাম, এলংজুড়ি ইউপি চেয়ারম্যান গোলাপ মিয়া, আওয়ামীলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মহরম আলী মেম্বার, আওয়ামী লীগ নেতা এনায়েত কবির, সমাজ সেবক এরশাদ মিয়া প্রমুখ।

Comments are closed.