উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনে গাইবান্ধায় বিশাল বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা

মোঃ মেহেদী হাসান, গাইবান্ধা ।। স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন উপলক্ষে গাইবান্ধায় বিশাল বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।
২২ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বিভিন্ন দপ্তরের উন্নয়ন তথ্য সম্বলিত ব্যানার ফেষ্টুন নিয়ে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা স্বাধীনতা প্রাঙ্গণ থেকে বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবারও স্বাধীনতা প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।
বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল। এসময় তিনি বলেন, বাঙালি জাতির জীবনে ঘটনা বহুল মার্চ মাসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে বাংলাদেশে আরও একটি সাফল্যের পালক যুক্ত হয়েছে। ‘উন্নয়নশীল দেশ’ বিনির্মাণের পথে বাংলাদেশ আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। ভারত, শ্রীলঙ্কাসহ বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশের কাতারেই আজ বাংলাদেশের অবস্থান। এখন থেকে বাংলাদেশ এই অঞ্চলের সব দেশের সঙ্গে সমান তালে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে পারবে।
তিনি বলেন, বর্তমান বাংলাদেশে মানব উন্নয়ন, আমদানি-রফতানি বৃদ্ধি, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভসহ আর্থিক খাতে উন্নয়ন ঘটেছে। আর্থিক অন্তর্ভুক্তি সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড বেগবান করেছে। ফলে, বেড়েছে মাথাপিছু আয়। যা মধ্যআয়ের দেশের পথে এগিয়ে নিচ্ছে বাংলাদেশকে। ফলে স্বল্পোন্নত দেশের কাতার থেকে বেরিয়ে আসার যোগ্যতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের উন্নয়ন নীতিবিষয়ক কমিটি (সিডিপি) ১৭ মার্চ বাংলাদেশের এ যোগ্যতা নিশ্চিত করেছে।
শোভাযাত্রায় জেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস এবং সরকারি সকল বিভাগ, ব্যাংক, বীমার কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী, এনজিও, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও ক্যাব গাইবান্ধা জেলা কমিটি, গাইবান্ধা পৌরসভা পৃথক পৃথক ব্যানারে অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও গাইবান্ধার বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সদস্য, সদর উপজেলার ন্যাশনাল সার্ভিসের সকল সদস্যসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন উপলক্ষে গাইবান্ধায় সপ্তাহব্যাপী (২০ থেকে ২৫মার্চ) জনবান্ধব বিভিন্ন সেবা প্রদান ও উৎসব কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সরকারের সাফল্য ও উন্নয়ন ভাবনা এবং উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরে গত ২০ মার্চ মঙ্গলবার প্রেস ব্রিফিংয়ে অবহিতকরণের মাধ্যমে এ কর্মসূচি শুরু হয়। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ওই প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।
এই সাফল্য স্মরণীয় করে রাখতে সারাদেশের সাথে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনসহ সকল সরকারি সেবা প্রতিষ্ঠান নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির আওতায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ২২ মার্চ সকাল ১০টায় স্বাধীনতা প্রাঙ্গণ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। ২৩ মার্চ সকাল ১০টায় গাইবান্ধা স্বাধীনতা প্রাঙ্গণে কাবাডি, লাঠিখেলাসহ ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ খেলাধুলা এবং ২৪ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গাইবান্ধা পৌর পার্কে আতশবাজী উৎসব, জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়াও স্কুল/কলেজ/মাদ্রাসাসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্ত করে এলডিসি উত্তরণ সংক্রান্ত তথ্য উপস্থাপনসহ ২০ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্ন্ত সকল প্রতিষ্ঠান ও দপ্তরসমূহে বিশেষ সেবা সপ্তাহ শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।

Comments are closed.