কৃষি - এপ্রিল ২২, ২০১৮ ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

নন্দীগ্রামে কাল বৈশাখী ঝড়ে গড়াগড়ি খাচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন

ডা. রাসেল মাহমুদ, নন্দীগ্রাম (বগুড়া) থেকে ।। বগুড়ার নন্দীগ্রামে কাল বৈশাখী ঝড় ও শীলাবৃষ্টিতে কৃষকদের স্বপ্ন এখন মাঠে গড়াগড়ি খাচ্ছে। শনিবার সকালের ঝড় ও শীলা বৃষ্টিতে আধা পাঁকা ধান গুলো মাটিতে নুয়ে পড়ে পানির উপর ভাসছে। এই বোরো ধান নিয়ে কৃষকদের অনেক স্বপ্ন থাকে। কিন্তু অল্প সময়ের ঝড়ে সেই স্বপ্ন এখন মাঠে গড়া গড়ি খাচ্ছে। এবার চলতি বোরো
মৌসুমে কৃষি অফিস থেকে নন্দীগ্রাম উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার বিভিন্ন মাঠে ২০ হাজার ৪শ ৪৪ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছিল। প্রথম দিকে আবহাওয়া ভালো থাকায় ও কৃষকদের কঠোর পরিশ্রমে বোরো
ধানের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দেখা গিয়েছিল। মাঠ জুড়ে শোভা পাচ্ছিলো সোনালী ধানের শীষ। কিন্তু কাল বৈশাখী ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে আধা পাঁকা ধান মাটিতে পড়ে গিয়ে অনেক ক্ষতি হয়েছে। পড়ে যাওয়া ধান গুলোতে আর আশানুরুপ ফলন হবেনা। ফলে কৃষকদের অনেক টাকা ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে উপজেলার অনেক এলাকার কৃষকরা ধান কাটতে শুরু করেছিল। কিন্তু ধান পুরোপুরি কেটে ঘরে তোলার আগেই কাল বৈশাখী ঝড়ে সব শেষ হয়েছে। ধানের সাথে সাথে কৃষকদের চাষকৃত মরিচ ও বেগুন সহ বিভিন্ন ধরনের সবজির ক্ষেত বিনষ্ট হয়েছে। একদিকে ধান অন্যদিকে সবজি, এই দুইটি ফসল ঝড়ো বৃষ্টির কারনে একসাথে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অনেক টাকা লোকশান হবে বলে মনে মন্তব্য করেছেন কৃষকেরা।

উপজেলার ভাটগ্রামের কৃষক আব্দুল জলিল, কৈগাড়ী গ্রামের এনামুল হক, সিংড়া খালাস গ্রামের আফসার আলী ও থালতা-মাজগ্রামের শহিদুল ইসলাম বলেন, এবার খুব ভালো ধান হয়েছিল। সবেমাত্র ধানের শীষ বের হওয়া শেষ হয়ে ধান পাঁকতে শুরু করেছিল। এমন সময় ধান পাঁকার আগেই ঝড়ো বৃষ্টিতে ধানগুলো মাটিতে নুয়ে পড়েছে। এখন আর আশানুরুপ ফলন হবে না। ধানের থেকে চিটার পরিমান হবে বেশি।

উপজেলা কৃষি অফিসার মুহা. মশিদুল হক জানান, ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে ধানের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে।

 

২ Comments

Comments are closed.