এক মাসেও উদ্ধার হয়নি সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী, অধরা অপহরণকারীরা

Muktijoddhar Kantho , Muktijoddhar Kantho
মে ১, ২০১৮ ২:২৫ অপরাহ্ণ

অষ্টগ্রাম (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।। অষ্টগ্রামে সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রী অপহরনের এক মাসে উদ্ধার হয়নি গ্রেফতার করতে পারেনি কোন অপহরণকারীকে। পুলিশের ভূমিকা রহস্যজনক বলে অভিযোগ উঠছে, উপজেলার পূর্ব অষ্টগ্রাম ইউনিয়নে সূত্র পাড়ায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। অষ্টগ্রাম থানা ও ছাত্রী পারিবারিক সূত্রে জানা যায় আব্দুল ওয়াদুদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর এই ছাত্রী গত ৩১মার্চ প্রতিদিরে মত বিদ্যালয়ে যায়।

ঘটনার দিন বিদ্যালয়ে সামনে যেতেই আগ থেকে উৎপেতে থাকা প্রতিবেশী ওয়াসিল মিয়ার পুত্র তানসন (১৯) তার আপন বড় ভাই
জুয়েল মিয়া (২৫) সহ অজ্ঞাত আরও ২/৩জন অপহরন করে নিয়ে যায়। এ ঘটনার আগে এই ছাত্রীকে বিভিন্ন সময়ে উক্তুক্ত করতে বলে তার ছাত্রী পরিবার জানান এবং এই ঘটনার তানসেনের অভিভাবকদের জানালে তার ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং সর্বশেষ ছাত্রীটিকে অপহরন করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। ঘটনার দিন ছাত্রী বাবা অষ্টগ্রাম থানায় জানাইয়া তার স্কুল পড়োয়া কন্যাকে খোঁজাখুজি করিতে থাকে এবং সর্বশেষ গত ৪ এপ্রিল ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে অষ্টগ্রাম থানায় ২জনের বিরোদ্ধে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে এনে ১টি মামলা দ্বায়ের করেন। মামলা নং-৩ মামলার তদন্তভার অষ্টগ্রাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহরাব মিয়া দেন।

মামলাটি গ্রহনের পর তদন্তকারী কর্মকর্তা ঘটনার স্থল এবং বাদী ও আসীদের বাড়ি পরিদর্শন করলেও এক মাসেও উদ্ধার হয়নি ছাত্রীটি, আটক করতে পাড়িনি কোন আসামীকে বাদী পক্ষ অত্যন্ত দরিদ্র শ্রেণীর লোক অপর পক্ষে আসামীরা অর্থনৈতিক সহ সকল ক্ষেত্রেই শক্তিশালী বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে ছাত্রীর বাড়িতে গেলে তার মা বাবা কে কান্না করতে দেখা যায় এবং তারা জানান বহু কষ্টে করে আমার মামলাটি রেকর্ড করে ছিলাম। আশা ছিল আমাদের স্কুল পড়োয়া এই কন্যাটি অবশ্যই উদ্ধার হবে। কিন্তু ঘটনার একমাসেও উদ্ধার না হওয়ায় আমরা হতাশা গ্রস্থ হয়ে গেছি। উক্ত ঘটনা পুলিশের রহস্যজনক ভূমিকা জনমানে অসন্তোষ ও খুব সৃষ্টি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে এ মামলা তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহরাব মিয়াকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, আমরা তো আর আল্লাহ নয় এরা কোথায় আছেন জানব, আপনারা সহায়তা করলে উদ্ধার করতে পারবো। এ ব্যাপারে পুলিশ সহকারী পুলিশ সুপার (অষ্টগ্রাম সার্কেল) দীপক চন্দ্র মজুমদার বলেন আমরা সর্বচ্চো চেষ্টা করছি ভিকটিম কে উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেপ্তার করার জন্য।

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/০১-মে২০১৮ইং/এন

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া